নাসার নতুন প্রযুক্তি ফ্লাইং সসার

মঙ্গলগ্রহের ব্যাপারে মানুষের আগ্রহের কোন কমতি নেই। আর সে আগ্রহের কারণেই এবার নাসা পরীক্ষা চালিয়েছে নতুন প্রযুক্তি ‘ফ্লাইং সসার’-এর৷

পৃথিবীর প্রতিবেশী এই গ্রহের ভূ প্রকৃতি কেমন? গ্রহটি আদৌ মানুষের বসবাসের উপযোগী কিনা? তা নিয়ে বহু দিন থেকেই চলছে জল্পনা-কল্পনা৷ আর এবার, সেই জল্পনার জট খুলতেই সাহায্য করবে নাসার নতুন এই প্রযুক্তি৷ যার সাহায্যে মঙ্গলে সহজে ও নিরাপদে নভোচারীরা অবতরণ করতে পারবেন৷

নাসার দাবি, এই পরীক্ষা থেকে যে তথ্য পাওয়া গেছে তা তাদেরকে আগামী দিনগুলোতে মঙ্গলে আরও ভারী জিনিস পাঠাতে সাহায্য করবে৷ নাসার এই পরীক্ষা যানের নাম দেয়া হয়েছিল ‘লো ডেনসিটি সুপারসনিক ডিসেলারেটর’৷

রকেট মোটরের সহায়তায় শব্দের চেয়েও চারগুণ দ্রুতগতিতে যানটি নিক্ষেপ করা হয়েছিল। যানটি ১ লাখ ২০ হাজার ফুট উপরে পৌঁছতে মাত্র দুই ঘণ্টা সময় নিয়েছিল বলে জানিয়েছে নাসা৷ গত শনিবার ১৫ কোটি মার্কিন ডলারের এই পরীক্ষাটি চালানো হয়৷ হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের কাওয়াই-এর একটি সামরিক ঘাঁটি থেকে যানটি ওড়ার পর নেমে আসার সময় প্যারাসুটে জট পাকিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে আছড়ে পড়ে৷

তা সত্ত্বেও প্রকৌশলীরা এটাকে ব্যর্থতা হিসেবে না দেখে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন ৷ ভবিষ্যতের পরীক্ষাগুলোতে এটা অনেক সাহায্য করবে বলে মনে করছেন তারা৷ যানটির ‘ব্ল্যাকবক্স’ খুঁজতে এরই মধ্যে একটি জাহাজ রওনা হয়েছে৷ ব্ল্যাকবক্সে এমন কিছু তথ্য আছে, যা বিশ্লেষণ করে দেখতে চান বিজ্ঞানীরা৷ তাদের ধারণা, এর থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া সম্ভব৷

এদিকে আগামী বছর হাওয়াই থেকেই আরও দুটি পরীক্ষামূলক ফ্লাইট পরিচালনার পরিকল্পনা রয়েছে মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসার৷ সূত্র: ডি ডব্লিউ

You Might Also Like