নারী অপরাধের পাপিয়ার পর ‘ভয়ঙ্কর’ ও ‘আলোচিত’ সংযোজন সাবরিনা

পাপিয়া-শারবিনা

পাপিয়াকাণ্ডে দেশজুড়ে তোলপাড় হয়ে গেলো। পাপিয়ার নিয়ন্ত্রণে ছিলেন ১ হাজার ৭০০ জন ‘সুন্দরী নারী’। তাদের নানাভাবে ফুসলিয়ে বা ব্ল্যাকমেল করে নিয়ে আসা হয়েছিল। তাদের দিয়ে পাপিয়া অপরাধ জগতের সরদারিনি হয়েছিলেন। তিনি উঁচুমহলের মনোরঞ্জনের ব্যবস্থা করতেন। বড় বড় হোটেল ছিলো তার বুকিং করা।

পাপিয়াই জানিয়েছেন, কপালের দোষে তাকে ধরা পড়তে হয়েছে। কিন্তু এই ব্যবসায় শত শত নারী আছেন। পাপিয়ার নেটওয়ার্কও যে নানা এলাকায় বিস্তৃত, সে কথা পত্রিকাগুলোতেই এসেছে।

সে হিসাবে কয়েক লাখ না হলেও কয়েক হাজার নারী যৌন দাসত্বের বলি হয়ে আছেন। যেহেতু এই পেশা অত্যন্ত গোপনীয় এবং আড়ালের ও অন্ধকার জগতের-অনুমানও করা কঠিন কার কন্যা বা মা বা বোন কখন পাপিয়াদের শিকারে পরিণত হচ্ছেন।

এ কথা বোঝার জন্য রকেট সায়েন্টিস্ট হতে হয় না যে পাপিয়ার মতো অন্য সব সরদারনীর নিয়ন্ত্রণাধীন একটি বড় অংশ সরদারনী হয়ে উঠতে চাইবে। কারণ, কাঁচা টাকার হাতছানি। চোখের পলকে সরদারনীদের ধনী থেকে মহাধনী হতে দেখার অভিজ্ঞতা এবং তা হতে তৈরি হওয়া লোভ। নতুন সরদারনী বাড়লে দেশের ভেতরে-বাইরে দুই জায়গাতেই নারী পাচার বাড়ে।

ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত হত্যাকাণ্ডে দুজন নারী তার সহপাঠী:  ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যায় দন্ডিত আসামিদের মধ্যে দুজন নারী তার সহপাঠী। এর একজন কামরুন নাহার মণি। আগুনে পুড়িয়ে হত্যার সময় নুসরাতের হাত বাঁধেন এবং তাকে চেপে ধরেন তিনি।

হত্যার জন্য নুসরাতকে ক্লাস থেকে ডেকে ছাদে নিয়ে যান এবং ওড়না দিয়ে হাত পেছনে নিয়ে বাঁধেন উম্মে সুলতানা নামে আরেক নারী। মণি ও সুলতানা পেশাদার খুনি নন। কিন্তু নিজ সহপাঠীকে নির্মমভাবে তারা হত্যা করেছেন। নুসরাত হত্যার পরিকল্পনায় অংশ নিয়ে এবং অন্য হত্যাকারীদের সহযোগিতা করে মণি ও সুলতানা দেশজুড়ে সমালোচিত হন।

চুরি, ছিনতাই ও অপহরণেও নারী:  শুধু হত্যা নয়, জঙ্গিবাদ, মানব পাচার, স্বর্ণ পাচার, মাদক ব্যবসা, প্রতারণা, শিশু চুরি, ছিনতাই ও অপহরণের মতো বড় বড় অপরাধেও নারীরা সম্পৃক্ত হচ্ছেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, নারী কোনো অপরাধে জড়িত থাকতে পারেন সমাজ তা বিশ্বাস করে না। আর অপরাধী সিন্ডিকেট সমাজের এই বিশ্বাসকে কাজে লাগায়। ফলে তারা নারীকে দিয়ে সহজেই নানা ধরনের অপরাধ করাতে পারে।

নারীরা বহু আগে থেকে নারী পাচারের মতো ভয়ঙ্কর অপরাধে জড়িত। বিশেষ করে পাচারকারী সিন্ডিকেটের সঙ্গে থাকা নারী সদস্যরা ফুসলিয়ে, ভালো কাজের আশ্বাস দিয়ে বিভিন্ন বয়সী নারীদের পাচারের ফাঁদে ফেলেন।

ইদানিংকালে নারীদের যে অপরাধগুলোর খবর আমাদের চোখে পড়ে:

প্রতারণার ফাঁদ: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে চাকরিজীবী ও ব্যবসায়ীদের টার্গেট করে প্রথমে সখ্য গড়ে তোলে। এরপর ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে প্রেমের মিথ্যা সম্পর্ক গড়ে তুলে একপর্যায়ে অপরাধী সেই নারী চক্র ভুক্তভোগীকে বাসায় ডেকে নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এই অবৈধ মেলামেশার ছবি তারা গোপনে ভিডিও করে রাখে।

পরে সেই ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ভুক্তভোগীদের ব্ল্যাকমেইল করে তাদের কাছ থেকে টাকা আদায় করে। এমন প্রায়ই খবর পাওয়া যায়। এই প্রতারণা হয় নানাভাবে। কিছুদিন আগে এক বন্ধু তার স্ত্রীকে ব্যবহার করে আরেক বন্ধুকে বাসায় ডেকে খুন করেছে।

জঙ্গিবাদে নারী: সাম্প্রতিক সময়ে নারীরা কেউ কেউ স্বামীদের প্ররোচনায় এবং কেউ কেউ স্বপ্রণোদিত হয়ে জঙ্গি সংগঠনগুলোর সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছেন। গেল কয়েকবছরে বেশ কয়েকজন নারী জঙ্গি ধরাও পড়েছেন।

র‌্যাব-পুলিশের দেওয়া তথ্যে, জেএমবির নারী জঙ্গিরা মূলত অর্থ ও সদস্য সংগ্রহ করে। কিছু ক্ষেত্রে কোনো নাকশতা ঘটানোর পূর্বে সে স্থানের রেকি করেন এবং নাশকতায় পুরুষ সদস্যদের সাহায্য করেন। ভয়ঙ্কর ব্যাপার হলো অনেক উচ্চশিক্ষিত নারীও এই জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ছেন।

নারী অপরাধের আলোচিত সংযোজন সাবরিনা: নারী অপরাধের সবশেষ আলোচিত সংযোজন সাবরিনা। এই সাবরিনাদের খোঁজ খুব একটা মেলে না। সমাজে এমন অনেক সাবরিনা আছে যারা শিক্ষাদীক্ষায় কোন অংশে কম নয়। তাদের অর্থ প্রতিপত্তিরও অভাব নেই। কিন্তু তারা আরো ক্ষুধা জাগায়, আরো অপরাধে জড়ায়। কর্পোরেট জগতে এই নারী অপরাধীরা নানাভাবে যুক্ত আছেন।

মুখোশ পড়ে হয়তো তারা কোন বড় অপরাধীকে সাহায্য করছেন, নয়তো নিজেই জড়িয়ে পড়ছেন অপরাধে। আড়ালে আবডালে এই শিক্ষিত নারী সমাজের যারা অপরাধের সঙ্গে নিজেরা জড়াচ্ছেন, তাদের মুখোশ উম্মোচন দরকার। তাহলেই হয়তো অনেক অপরাধী নারী হওয়ার সুযোগটা নেবে না। অনেকে নারীদের দিয়ে অপরাধ করার সুযোগটা নেবে না।

 

আলোচিত সংবাদ

 

রিমান্ডে মুখোমুখি সাবরিনা-আরিফ : প্রতারণার কথা স্বীকার করে যা বললেন-

 

জেনে নিন চিত্রনায়িকাদের রূপের রহস্য!

 

বাংলাদেশে সঞ্চয়পত্র বিক্রিতে ভাটা : যে কারণে টাকা তুলে নিচ্ছেন গ্রাহকরা

 

ট্রান্সশিপমেন্ট শুরু : বাংলাদেশ দিয়ে আসাম ও ত্রিপুরায় যাবে ভারতীয় পণ্য

 

বাংলাদেশে বানের জলে ভাসছে জীবন : ৮ জনের মৃত্যু

 

নিউইয়র্কে ঈদুল আজহার জামায়াত স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে করার পরামর্শ

 

স্যুট টাই মাস্ক গ্লাভস পরিহিত ফাহিমের খুনি!

 

বৈদ্যুতিক করাতে কেটে টুকরো করা হয় ফাহিমের দেহ

 

ফাহিমের খুনি দেখতে যেমন!

 

পাঠাও অ্যাপের ফাহিমকে নিয়ে যা বললেন তসলিমা নাসরিন

 

এমপি পাপুলের সদস্য পদ বাতিল চেয়ে ইসিতে চিঠি

 

এবারও চামড়া নিয়ে সংকটে বাংলাদেশ

 

বাংলাদেশে করোনা : নতুন রোগী কমেছে, বেড়েছে মৃত্যু

 

রিজেন্টের সাহেদ ১০ দিনের রিমান্ডে

 

রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি কার নির্দেশে, জানালেন হেলথ ডিজি

 

বাংলাদেশে ঈদের ছুটিতে ৪ জেলা থেকে যাতায়াত বন্ধে চিঠি

 

বাংলাদেশে শেয়ার কারসাজি : ৩ প্রতিষ্ঠান ও ২ ব্যক্তিকে ৫ কোটি টাকা জরিমানা

 

রিজেন্ট হাসপাতালের লাইসেন্স নেই জেনেও চুক্তি করেছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

 

যার মাধ্যমে টিভি মিডিয়ায় প্রভাব বিস্তার করেছিলেন সাহেদ

 

প্রকাশ পাচ্ছে সাহেদের নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য

 

এভাবেই পেটাত ও নারী দিয়ে হেনস্তা করত সাহেদ

 

সাহেদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

 

সাহেদের ব্যাংক হিসাব জব্দ

 

রিজেন্টের সাহেদের প্রধান সহযোগী গ্রেপ্তার

 

রিজেন্ট হাসপাতালের দুর্নীতি তদন্তে দুদক

 

সাহেদের স্ত্রীও এখন বিচার চান

 

বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণ দুর্নীতি ও অনিয়ম

 

বাংলাদেশে করোনায় মারা যাওয়া ৭৯ ভাগ পুরুষ

 

টিভিতে অভিনয়ের কথা বলে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণ : তরুণীর মামলায় গ্রেপ্তার ২

 

পরিবহণ সমিতির নেতাকে হত্যার হুমকি, থানায় জিডি

 

You Might Also Like