নকল ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরি চক্রের চার সদস্য আটক

নকল ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরি চক্রের চার সদস্যকে আটক করেছে ডিএমপির গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগ (ডিবি)। এদের মধ্যে চাকরিচ্যুত সেনা ও পুলিশ সদস্য রয়েছে।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে এক সাংবাদিক সম্মেলনে গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

এরা হলেন মো. সিরাজুল ইসলাম জিন্নাত, চাকরিচ্যুত পুলিশ সদস্য মো. বজলুর রহমান, চাকরিচ্যুত সেনাসদস্য মো. সাইদুর রহমান শিমুল ও মো. আ. রাজ্জাক।

মনিরুল ইসলাম বলেন, আটকদের কাছ থেকে একটি এলজি মনিটর, একটি সিপিইউ, একটি কার্ড প্রিন্টার, সাতটি ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড, ছয়টি নকল ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড, ২১টি অসম্পূর্ণ পিবিসি সাদা কার্ড, দুটি হলোগ্রাম রিবন গোল্ডেন, সাতটি সিলভার কালার ও দুটি কালো কালার উদ্ধার করা হয়।

মনিরুল ইসলাম আরো বলেন, তারা ভুয়া বিআরটিএ কর্মকর্তা সেজে নকল ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরি করে বিভিন্ন লোকের কাছে সরবরাহ করত। ভুয়া ড্রাইভিং লাইসেন্স ৭৫০ টাকা, নকল ফিটনেস সার্টিফিকেট ৫০০ টাকা, নকল ইন্স্যুরেন্স সার্টিফিকেট ৩৫০ টাকায় সরবরাহ করত তারা। এজন্য বিআরটিএ কার্যালয় এলাকায় তারা ঘোরাফেরা করত। তারা মূলত দালালের মাধ্যমে কাজ করে। ওই দালালরা মাঠে কাজ করে গ্রাহক খুঁজে আনে এবং নকল ড্রাইভিং লাইসেন্স সরবরাহ করে।

ডিবির যুগ্ম-কমিশনার বলেন, চাকরিচ্যুত পুলিশ সদস্য বজলুর রহমান এর আগে ট্রাফিক বিভাগে কাজ করত। এ জন্য তার ড্রাইভিং লাইসেন্স সম্পর্কে ভাল ধারণা আছে। তিনি ২০ বছর আগে চাকরিচ্যুত হন। চাকরিচ্যুত সেনাসদস্য সাইদুর রহমান শিমুল মেশিন টুলস ফ্যাক্টরিতে কাজ করত। এ জন্য স্মার্ট কার্ড সম্পর্কে তার ভাল ধারণা ছিল। তাকে চার বছর আগে সেনাবাহিনী থেকে চাকরিচ্যুত করা হয়।

You Might Also Like