ধর্ষিতা শিশুর ‘সাংঘাতিক’ চিঠি

শিশুটির বর্তমান বয়স মাত্র আট বছর। তিন বছর আগে এমন এক ঘটনা ও অভিজ্ঞতা তার হয়েছে যার ফলে এক ধাক্কায় মনে বয়সটা বেড়ে গেছে কয়েকগুণ। ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর কেটে গেছে তিন বছর। কিন্তু বিচার পায়নি। কেউ তাকে ফিরে দিতে পারেনি স্বাভাবিক জীবন।

২০১১ সালের আগস্ট মাসের ঘটনা। ব্রিটেনের এসেক্সে এক দুপুরবেলা সারা ও পিটারের (ছদ্মনাম) একমাত্র মেয়েকে ধর্ষণ করে তাদেরই পরিবারিক বন্ধুর ১২ বছরের ছেলে। সেদিন ভয়ে-লজ্জায় কাউকে কিছু বলেনি সে। কিন্তু পরের দিন মাকে সব খুলে বলে। তার কথা মতো থানায় অভিযোগ করেন সারা ও পিটার।

এতে উল্টো বিপত্তি পড়েন তারা। অপরাধীকে শাস্তি দেয়ার বদলে অভিযোগকারীদের পেছনে লাগে পুলিশের দুই উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা সু হ্যারিসন এবং ডেরেক বেনসন। তথ্য-প্রমাণ হিসেবে ডিএনএর নমুনা সংগ্রহ করা তো করেইনি বরং অভিযুক্তকে আড়াল করতে আইনের সঠিক ধারায় অভিযোগ পর্যন্ত দাখিল করেনি।

উপরন্তু অভিযুক্তের বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে ২-৩ বার গ্রেপ্তার করা হয় পিটারকে। গত ৩ বছর ধরে মামলার নামে চলছে প্রহসন। হাজার হাজার পাউন্ড খরচ করেও মেয়েকে স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে পারেননি তিনি। তার ওপর পুলিশি হয়রানিতে অতিষ্ট।

গত দেড় বছর ধরে মানসিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাদের মেয়ে। ঘটনার পর থেকে সে মানসিকভাবে এতটাই বিপর্যস্ত যে অতটুকু বয়সে দিনের পর দিন ঘরের দরজা বন্ধ করে ভেতরে বসে থাকত। কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর তদন্তকারী দুই কর্মকর্তাকে সে একটি চিঠি লিখেছে। যেটা পড়লে বিশ্বের যে কোনও পুলিশের মাথা লজ্জায় হেঁট হয়ে যাবে। তার চিঠির সরল অনুবাদ করলে যা দাঁড়ায়:

ডিয়ার স্যার,
যখন পাঁচ বছরের ছিলাম, তখন আমার সঙ্গে খুব বাজে একটি ঘটনা ঘটে। আপনাদের দায়িত্ব ছিল যাতে দোষী শাস্তি পায়। কিন্তু আপনারা আপনাদের কাজ ঠিক করে করেননি। আমায় খুব হতাশ করেছেন। খুব রাগও হচ্ছে আমার, আমি তখন ছোট্ট একটি মেয়ে ছিলাম। এখন আমার বয়স আট। এখনও পর্যন্ত সে কোনও শাস্তি পায়নি।

সে আমার থেকে বয়সে বড় ছিল বলেই কি আপনারা বুঝে-শুনে করেছেন? আমি আপনাদের বিশ্বাস করেছিলাম। ভেবেছিলাম এই মানসিক যন্ত্রণা থেকে আপনারা আমায় মুক্তি দেবেন। কিন্তু তা করেননি। ভাবতাম, পুলিশের কাজ বাজে লোকদের ধরে তাদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা। আপনারা তা করেননি। আশা করি আপনারা বুঝতে পারছেন আমি আপনাদের ওপর খুবই হতাশ।

আমার মনে হয় আপনাদের আমায় দুঃখ প্রকাশ করে একটা চিঠি লেখা উচিৎ। আমি যখন বন্ধুদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করি আমিও তাদের চিঠি লিখে দুঃখ প্রকাশ করি। আশা করি ভবিষ্যতে আপনারা এমন কাজ করবেন না। আশা করি, দোষী খুব শিগগিরই উপযুক্ত শাস্তি পাবে।

You Might Also Like