ধর্ষণের অভিযোগে বরকলের যুবলীগ সভাপতি বহিস্কার

অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে রাঙ্গামাটির বরকল উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুনকে দল থেকে সরাসরি বহিস্কার করা হয়েছে।

রোববার তাকে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের নির্দেশে সরাসরি দল থেকে বহিস্কার করা হয়।

দলটির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল স্বাক্ষরিত চিঠিতে এ বহিস্কারাদেশ জারি করা হয়েছে।

যুবলীগের রাঙ্গামাটি জেলার সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কাজল বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গঠনতন্ত্রের ধারায় কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক বরকল উপজেলা যুবলীগের সভাপতি পদসহ মামুনুর রশিদ মামুনকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বরকল থানায় মামলা হয়েছে। যা প্রমাণিতও হয়েছে।

উল্লেখ্য, মামুন বরকল উপজেলার ৪ নম্বর ভুষণছড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান।

গত ২৪ জুন মামুনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে বরকল থানায় একটি মামলা হয়। মামলার পরপরই গ্রেফতার এড়াতে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান তিনি ।

এ বিষয়ে বরকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ আমলে নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মামুনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামি গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

ভুক্তোভোগীর বাবা ও মামলার বাদী মো. নাছির উদ্দিন হাওলাদার বলেন, বিয়ে এবং চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে চেয়ারম্যান মামুন আমার মেয়ের (২০) সর্বনাশ করেছে। মেয়েটি এখন সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা। আমি অবিলম্বে আসামিকে গ্রেফতার করে তার সুষ্ঠু বিচার ও উপযুক্ত শাস্তি চাই।

এদিকে মামলার আসামি ইউপি চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ মামুন বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। আমার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ মিথ্যা এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

You Might Also Like