দেশব্যাপী ঈদুল আযহা উৎযাপিত

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দেশব্যাপী মুসলমানদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আযহা উৎযাপিত হয়েছে।

প্রতিবারের মতো এবারো দেশের বৃহত্তম ঈদ জামাত কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হয়।

অন্যদিকে রাজধানীতে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে সকাল সাড়ে ৮টায় জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে।

এখানে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ একই কাতারে ঈদুল আযহার নামাজে মিলিত হন।

মন্ত্রি পরিষদের সদস্য, সংসদ সদস্য ও বিচারপতিসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ জাতীয় ঈদগাহে নামাজ আদায় করেন।

এছাড়া বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে সকাল ৭টা থেকে এক ঘণ্টা পরপর পাঁচটি ঈদ জামাত হচ্ছে।

ঈদের নামাজের পরপরই বিভিন্ন স্থানে শুরু হয়েছে পশু কোরবানি। এবার রাজধানীতে গরুর সরবরাহ ভাল থাকায় দাম ছিল অনেকটা গতবারের মতোই অর্থাৎ স্বাভাবিক। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে গরু নিয়ে রাজধানীর হাটে আসা ব্যবসায়ীদের অনেকেই কাঙ্খিত লাভ না পাওয়ার কথা বলেছেন।

কোরবানির পর ঢাকাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে প্রায় ১৩ হাজার কর্মীর পাশাপাশি বর্জ্যের দুর্গন্ধ দূর করতে এ বছর বিশেষ ধরনের পলিব্যাগ বিতরণের পরিকল্পনা করেছে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন।

এর মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন দুর্গন্ধ দূর করতে ব্যাকটেরিয়া দিয়ে তৈরি বিশেষ স্প্রে ব্যবহার করারও উদ্যোগ নিয়েছে।

ঈদের দিন থেকে পরের ৪৮ ঘণ্টা জুড়ে এই পরিচ্ছন্নতার কাজ চলবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা সিটি কর্পোরেশন উত্তর ও দক্ষিণের দুই প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা।

তারা জবাই করা পশুর রক্ত ও অপ্রয়োজনীয় অংশ নর্দমা কিংবা যেখানে সেখানে না ফেলে ডাস্টবিনে ফেলতে এবং দ্রুত বর্জ্য অপসারণের জন্য প্রয়োজনে সিটি কর্পোরেশনকে খবর দিতে অনুরোধ করেছেন।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন।

 

You Might Also Like