থাড মোতায়েনের কাজ চূড়ান্ড পর্যায়ে, যাচ্ছে যন্ত্রপাতি: পুলিশ-বিক্ষোভকারী সংঘর্ষ

আমেরিকা বিতর্কিত ‘থাড’ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার যন্ত্রাংশ দক্ষিণ কোরিয়ার পূর্বনির্ধারিত স্থানে নেয়া শুরু করেছে। দক্ষিণ কোরিয়ার ইয়োনহ্যাপ সংবাদ সংস্থা এ খবর দিয়েছে। উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়ার টানাপড়েন যখন তুঙ্গে তখন এ ব্যবস্থা মোতায়েনের উদ্যোগ নেয়া হলো।

খবরে বলা হয়েছে, মার্কিন অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা ‘থাড’-এর রাডার এবং অন্যান্য সরঞ্জাম পূর্বনির্ধারিত এলাকায় নেয়া হয়েছে। আজ (বুধবার) দক্ষিণ কোরিয়ার দক্ষিণপূর্বাঞ্চলীয় সেওনজু এলাকার একটি গলফ খেলার কেন্দ্রে এসব যন্ত্রপাতি ছয় ট্রেইলারে করে নেয়া হয়।

‘টার্মিনাল হাই অ্যাল্টিটিউড এরিয়া ডিফেন্স’ বা ‘থাড’-এর যন্ত্রপাতি পরিবহন করার সময় বিক্ষোভকারী গ্রামবাসী এবং পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে। ‘থাড’ মোতায়েন চূড়ান্ত করার পর দেশটিতে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে এ নিয়ে বেশ কয়েকবার সংঘর্ষ হলো।

এর আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ঘোষণা করেছিল যে, দেশটি দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘থাড’ মোতায়েনের কাজ শুরু করেছে। ওয়াশিংটন দাবি করে, জাপানে অবস্থিত মার্কিন ঘাঁটিগুলোতে হামলা চালানোর লক্ষ্যে উত্তর কোরিয়া নিজের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির বিস্তার ঘটানোর কারণে এ ব্যবস্থা মোতায়েন করা হচ্ছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার ভূমিতে ‘থাড’ মোতায়েনে আঞ্চলিক নিরাপত্তা ক্ষতিগ্রস্ত হবে উল্লেখ করে এর আগে রাশিয়া এবং চীন বলেছে, এর বিরুদ্ধে সম্মিলিত অবস্থান জোরদার করবে মস্কো ও বেইজিং।

চীন দক্ষিণ কোরিয়ার মাটিতে ওয়াশিংটন ও সিউলের ‘থাড’ মোতায়েনের বিরোধিতা করে বিবৃতি দিয়েছে।

এ ছাড়া, রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘থাড’ মোতায়েন পরিকল্পনার কারণে এরিমধ্যে কোরিয় উপদ্বীপে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। মার্কিন এ তৎপরতায় পরিস্থিতির অবনতি হবে।#

পার্সটুডে

You Might Also Like