হোম » ‘রোহিঙ্গাদের অধিকার রক্ষায় কাজ করে যাবেন পোপ’

‘রোহিঙ্গাদের অধিকার রক্ষায় কাজ করে যাবেন পোপ’

admin- Friday, December 1st, 2017

ঢাকা সফররত ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস রোহিঙ্গাদের অধিকার রক্ষায় অব্যাহতভাবে কাজ করে যাওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর আর্চ বিশপ মাঠে এক সভায় রোহিঙ্গাদের উদ্দেশে তিনি বলেছেন, ‘তোমাদের কষ্ট দেখে আমাদের প্রশান্তি বিঘ্নিত হয়। আমরা সবাই শান্তি চাই। যেখানে মন্দ রয়েছে, সেখানেই শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করছি আমরা।’

বক্তব্যে ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি ব্যবহার না করলেও পোপ ফ্রান্সিস বলেন, বাংলাদেশের অনেকে বলেছেন তোমাদের (রোহিঙ্গা) দুঃখের কথা। এখন সাহায্য করা দরকার। আমরা তোমাদের অধিকার রক্ষায় অব্যাহতভাবে কাজ করে যাব।’

এর আগে বাংলাদেশ ও ভ্যাটিকানের জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। পরে সভাস্থলে পৌঁছালে ইসলাম, হিন্দু ও বৌদ্ধ ধর্মের পক্ষ থেকে পোপকে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ধর্মীয় উৎসব ‘হোলি মাস’-এ পোপ ফ্রান্সিস

শুভেচ্ছা জানান মাওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসুদ, যোগেশ্বর নন্দ ও শ্রদ্ধানন্দ মহাথেরো। অনুষ্ঠানে সুশীল সমাজের পক্ষে অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বক্তব্য দেন। খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের পক্ষে বক্তব্য দেন থিওপিল নকরেক।

সবার বক্তব্যেই বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নিরাপদে প্রত্যাবর্তনের বিষয়টি উঠে এসেছে।

এরপরই বক্তব্য শুরু করেন পোপ ফ্রান্সিস। তিনি বলেন, ‘সকল ধর্মের পক্ষ থেকে আমাকে স্বাগত জানানো হয়েছে- এজন্য আমি কৃতজ্ঞ ও ধন্যবাদ জানাই। সকল ধর্ম বিশ্বাসীরা উপলব্ধি করেছেন, একে অন্যকে সহযোগিতা করবেন। এটি খুবই ভালো বিষয়। আর এমন উন্মুক্ত হৃদয় একটি পথ, যা আমাদের প্রত্যেককে উপরে নিয়ে যায়।’

পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তাকে একটি নৌকা উপহার দেন প্রধানমন্ত্রী

ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর বারিধারায় ভ্যাটিকান দূতাবাসে গিয়ে পোপের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন তিনি। এ সময় শেখ হাসিনা তাকে (পোপ ফ্রান্সিসকে ) স্যুভেনির হিসেবে একটি নৌকা উপহার দেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানান, পোপ ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময়ের পর তারা ২০ মিনিটব্যাপী আলাপ-আলোচনা করেন।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারে সফর শেষে বাংলাদেশে তিনদিনের সফরে বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকায় আসেন পোপ ফ্রান্সিস। এ সময় বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ। রাতে বঙ্গভবনে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পোপ ফ্রান্সিস। একইদিন অন্যান্য কূটনীতিকদের সঙ্গেও কুশল বিনিময় করেন তিনি।