তিন মাস সাজার পর গৃহিণীকে ফেরত দিল বিএসএফ

কুড়িগ্রামের রৌমারীতে বাংলাদেশি এক উপজাতি গৃহিণীকে ভারতীয় জেলে তিন মাস সাজা ভোগের পর ফেরত দিয়েছে বিএসএফ।

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে রৌমারী সীমান্তের আন্তর্জাতিক পিলারে (১০৬৫) পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাকে ফেরত দেয়া হয়।

এসময় বিএসএফ’র পক্ষে নেতৃত্ব দেন ১৫৭ ব্যাটালিয়নের সহকারী কমান্ডিং অফিসার রনজিৎ সিং, মানকাচর পুলিশ প্রশাসনের পক্ষে সহকারী পুলিশ সুপার মনোয়ার হোসাইন এবং বিজিবি’র পক্ষে নেতৃত্ব দেন ৩৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের রৌমারী কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার মনিরুজ্জামান ও রৌমারী থানার উপ-পরিদর্শক আবু হানিফ।

৩৫ বিজিবি ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২ বছর আগে রাঙামাটির বাজাইছড়ি থানার ভুয়াছড়ি গ্রামের মনিষ চাকমার মেয়ে শান্তনা চাকমার (১৭) বিয়ে হয় ভারতের গোয়ালপাড়ার কৃষ্ণা থানার বরবাহান রায়ের সাথে। বাংলাদেশের ভুয়াছড়ি গ্রামে দু’জনে দেড় বছর ঘর সংসার করে। পরে ২০১৩ সালে সিলেট সীমান্ত দিয়ে ভারতে চলে যান। সেখানে ছয় মাস অবস্থান করার পর ভারতীয় পুলিশ টের পেলে তাকে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে গ্রেফতার করে জেলে পাঠায়। এরপর মঙ্গলবার বিকেলে বিজিবি ও বিএসএফ পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে শুধুমাত্র উপজাতি গৃহিণী শান্তনা চাকমাকে ফেরত দেয়া হয়। বর্তমানে তিনি রৌমারী থানা হেফাজতে রয়েছেন।

এ ব্যাপারে রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি শামীম হাসান সরদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তাকে তার নিজ জেলা রাঙামাটির বাজাইছড়ি থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুর রাজ্জাকের সাথে কথা বলে ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে বুধবার ও বৃহস্পতিবার হরতাল শেষে হস্তান্তর করা হবে।

You Might Also Like