তাজমহলে ‘মমতাজ’ মমি?

বিশ্বের অন্যতম আশ্চর্য এই স্মৃতি সৌধ নিয়ে কৌতুহলের শেষ নেই। শ্বেতশুভ্র তাজকে একবার চাক্ষুষ করতে বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে মানুষ আসেন আগ্রায়। তার দ্বিতীয় ও সবচেয়ে প্রিয় স্ত্রী মমতাজের স্মৃতিতে তাজমহল তৈরি করেছিলেন মুঘল সম্রাট শাহজাহান। এই তথ্য অনেকেই জানেন। কিন্তু জানেন কি তাজমহল তৈরির পিছনে একটা তিক্ত সত্যি রয়েছে? যা প্রকাশিত হলে, বদলে যাবে ইতিহাস। তাজমহল আসলে ‘মমি মহল’। সেখানে এখনও রয়েছে মমতাজের মমি।
সম্প্রতি বিখ্যাত সাংবাদিক আফসর আহমেদের লেখা বই ‘তাজমহল অর মমি মহল’ প্রকাশিত হয়েছে। বইটিতে তাজমহল সম্পর্কে এমন কয়েকটি তথ্য রয়েছে, যা পড়লে হাড়হিম হয়ে যায়। প্রশ্ন উঠে যায়, আদৌ তাজমহল কারও প্রেমের স্মৃতি বহন করে কিনা। আফসর আহমেদের দীর্ঘ পড়াশোনার নির্যাস বইটি। দু’শো পাতার বইটিতে তাজমহলকে মমি মহল হিসেবেই বর্ণনা করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রশ্ন উস্কে দিয়েছে, মুঘল সম্রাটরাও কি প্রাচীন মিশরের মতো মৃতদেহ মমি হিসেবে রক্ষণাবেক্ষণ করতেন। তাজমহলের রহস্য কি?
মমতাজ মহলকে নিয়ে আফসর আহমেদ দীর্ঘ গবেষণা করে এমন কয়েকটি সত্যির মুখোমুখি হয়েছেন, যা তাজমহলের ইতিহাসকেই বদলে দিতে পারে। আফসর জানিয়েছেন, মমতাজকে তিনবার কবর দেওয়া হয়েছিল। শেষবার কবর দেওয়ার পর মমতাজের মৃতদেহ ফের মাটি খুঁড়ে তোলা হয়। এবং মমতাজের পরলৌকিক ক্রিয়াটি ইসলাম ধর্ম মেনে হয়নি। অত্যন্ত গোপনেই মমি হিসেবে তার দেহ সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়। তাই তাজের ভিতরে মাটির তলায় আজও থাকতে পারে শাহজাহানের সংরক্ষিত মমতাজের দেহ।

You Might Also Like