তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার নির্দেশ দিলেন ইমরান খান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ‘এক চীন’ নীতি অনুসরণ করে তাইওয়ানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার নির্দেশ জারি করেছেন।

গতকাল (রোববার) পাক প্রধানমন্ত্রীর দফতর এক লিখিত নির্দেশে পাকিস্তানের সবগুলো মন্ত্রণালয়কে তাইওয়ানের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ও সহযোগিতা ছিন্ন করার আহ্বান জানিয়েছে।

ইমরান খানের আসন্ন চীন সফরের আগে এ নির্দেশ জারি করা হলো। আগামী ৩ নভেম্বর পাক প্রধানমন্ত্রীর তিন দিনের সফরে বেইজিং যাওয়ার কথা রয়েছে। এ সফরে ইমরান খান চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোর এবং পাকিস্তানে চীনের বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার বিষয়ে চীনা নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে কথা রয়েছে।

তাইওয়ানকে চীন নিজের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে মনে করে। তবে বিগত বছরগুলোতে সাই ইং ওয়েন তাইওয়ানের ক্ষমতা গ্রহণের পর দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বেড়ে গেছে। সাই ইং চীন থেকে তাইওয়ানকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন করে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র ঘোষণা করতে চান।

চীনে কমিউনিস্ট বিপ্লবের পর ১৯৪৯ সালে তাইওয়ান চীন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। চীন এই বিচ্ছিন্নতা মেনে নেয়নি এবং বেইজিং তাইওয়ান দ্বীপকে নিজের একটি প্রদেশ বলে মনে করে। সম্প্রতি চীন সরকার কঠোর অবস্থান গ্রহণ করে ঘোষণা করেছে, তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষাকারী দেশগুলোর সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করবে বেইজিং।

চীনের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষা করার লক্ষ্যে পাকিস্তান আগেভাগেই তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করল বলে মনে করা হচ্ছে।#

পার্সটুডে

You Might Also Like