ড. নীনা আহমদ কংগ্রেসওম্যান নয়, লড়ছেন গবর্নর পদে

শিব্বীর আহমেদ, পেন্সিল্ভেনিয়া থেকে: ফিলাডেলফিডা কংগ্রেসনাল আসনের জন্য প্রচারণা চালানোর জন্য মেয়র ক্যানীর সাবেক সহযোগী নিনা আহমদ এখন ল্যাফটান্যান্ট গভর্নর পদে লড়বেন। সরে দাড়ালেন কংগ্রেসনাল নির্বাচনী দৌড় থেকে। যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া সুপ্রিম কোর্টের এক রায়ে নির্বাচনী সীমানা পরিবর্তন হওয়ায় ড. নীনা এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। কংগ্রেসনাল নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর পর ড. নীনা এক বর্তায় বলেন, হ্যারিসনবার্গের অনেক বেশি সময় ধরে পুরুষের আধিপত্য রয়েছে এবং এই সংস্কৃতির পরিবর্তে নতুন সংস্কৃতির পরিবর্তন হবে না। “যৌনতা এবং যৌন হয়রানি বন্ধ করার জন্য আমি গভর্নর ওলফের সাথে কাজ করব। তিনি বলেন, রিপাবলিকান নেতৃত্বাধীন সরকারের বন্ধ করা স্কুলের অর্থ সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য প্রাকৃতিক গ্যাস কোম্পানীগুলোর উপর ট্যাক্স আরোপ করতে তিনি গভর্নর ওলফের সাথে কাজ করবেন। ড. নীনা আহমেদ প্রায় ৫৬০,০০০ ডলার নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণয় নামেন এবং এ পর্যন্ত তার প্রচারাভিযান ৪৫০,০০০ ডলার নির্বচনী প্রচারণায় ব্যয় করেন বলে ফেডারেল নির্বাচন কমিশনের সাথে নিবন্ধিত রেকর্ড অনুযায়ী জানা যায়।
এদিকে গত ২৫শে ফেব্রুয়ারি ফিলাডেলফিয়ার একটি রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত “অ্যালায়েন্স অফ এশিয়ান অ্যামেরিকান লেবার (অ্যাসাল) এর আয়োজনে ড. নীনা আহমেদ এর সমর্থনে এক নির্বাচনী সভায় নীনা আহমেদ কংগ্রেসনাল নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা পুর্নব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট কর্তৃক কংগ্রেসনাল সীমানা পুন: নির্ধারণ করায় আমি ল্যুটানেন্ট গর্ভনর পদে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। এতে আমি ফিলাডেলফিয়ার জন্য অনেক বেশী কাজ করতে পারব। সভা পরিচালনা করেন মোহাম্মেদ শহীদ এবং অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অ্যাসালের সহ সভাপতি শাহ ফরিদ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফিলাডেলফিয়ার ডিস্ট্রিক ১ থেকে ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী ড. নীনা আহমেদ এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ড. নীনা আহমেদের নির্বাচনী সমন্বয়কারী ডা ইবরুল চৌধুরী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নিউইয়র্ক থেকে আগত অ্যাসালের ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট মেজবাউদ্দীন এবং সেক্রেটারি মোহাম্মেদ কারিম চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্ত্যব রাখেন সাবেক কাউন্সিলম্যান আলাউদ্দীন পাটেয়ারী, এ আর খান লাভ্লু,শাহ্ আহম্মেদ, নুরুদ্দীন নাহিদ, অ্যাসাল নিউইয়র্ক কুইন্স বরো শাখার সহ সভাপতি মোহাম্মেদ জহুরুল হক, মোহাম্মেদ খালুকুজ্জামান, জেড মাতালুওন, অ্যাসাল নিউইয়র্ক ব্রংন্স বরো শাখার সভাপতি তাহমিদুল হক, অ্যাসাল নিউজার্সী শাখার সভাপতি ফারুক হোসেন এবং জসিমুদ্দীন।

You Might Also Like