ডুবোজাহাজে চড়ে কৃষ্ণসাগরে অভিযান চালালেন পুতিন

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ক্ষুদে ডুবোজাহাজে চড়ে কৃষ্ণসাগরের তলদেশে অভিযান চালিয়েছেন। ক্রিমিয়া উপদ্বীপের কাছে অতীত কালে ডুবে যাওয়া একটি জাহাজের ধ্বংসাবশেষ পরিদর্শনের জন্য গতকাল এ অভিযান চালান তিনি।

নেদারল্যান্ডের তৈরি ক্ষুদে ডুবোজাহাজ নিয়ে সাগরের ৮৩ মিটার গভীরে গিয়েছিলেন রুশ প্রেসিডেন্ট। দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলীয় বন্দর নগরী সাভেস্তোপোলের কাছে কৃষ্ণসাগরের তলদেশে তার এ অভিযান ৪৫ মিনিট স্থায়ী হয়েছিল। ক্রিমিয়ার অতীতকালের বাণিজ্য পথ নিয়ে রাশিয়ান জিওগ্রাফিক সোসাইটির গবেষণার অংশ হিসেবে এ অভিযানে নামেন পুতিন।

অভিযান শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ৪০ সেন্টিমিটার কাদায় ঢেকে থাকায় ডুবে যাওয়া জাহাজটি পুরোপুরি দেখা বেশ কষ্টসাধ্য ছিল। ২৭ থেকে ৩০ সেন্টিমিটার লম্বা এবং ১৩ থেকে ১৫ মিটার দীর্ঘ জাহাজটির মাটির তৈরি পানির পাত্রসহ নানা জিনিস চারধারে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বলেও জানান তিনি।

কৃষ্ণসাগরের উত্তরের তলদেশে এ জাতীয় ধ্বংসাবশেষ খুব একটা পাওয়া যাবে বলে মনে করেন না উল্লেখ করে পুতিন বলেন, বিশেষজ্ঞরা জাহাজটি খতিয়ে দেখবেন।

রুশ প্রেসিডেন্ট এ নিয়ে তৃতীয় দফা সাগর তলে অভিযান চালালেন। ২০০৯ সালে বৈকাল হৃদের ১৪০০ মিটার তলদেশে ডুবোজাহাজ নিয়ে পরিদর্শন করেছিলেন তিনি। রুশ দক্ষিণাঞ্চলীয় সাইবেরিয়ায় এ হৃদটি অবস্থিত। এ ছাড়া, ২০১৩ সালে বাল্টিক সাগরের ফিনল্যান্ড উপসাগরে ক্ষুদে ডুবোজাহাজ নিয়ে অভিযান চালান তিনি। ১৮৬৯ সালে ডুবে যাওয়া নৌবাহিনীর ওলেগা নামের ফ্রিগেট পরিদর্শনের জন্য এ অভিযান চালানো হয়েছিল।

You Might Also Like