ট্রেনের ভাড়া বাড়ানোর পরামর্শ সংসদীয় কমিটির

যাত্রী সেবার মান ‘ঠিক রেখে’ রেল মন্ত্রণালয়কে ট্রেনের ভাড়া বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছে সংসদীয় কমিটি।

মঙ্গলবার সংসদ ভবনে রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ পরামর্শ দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, “আমাদের বর্তমান যে ভাড়া আছে সেটা খুবই কম। আমরা এজন্য বাড়াতে বলেছি। তবে এখানে অনেকগুলো ফ্যাক্টর আছে। সবকিছু বিবেচনা করে ভাড়া বাড়ানোর জন্য বলা হয়েছে।”

সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বিষয়টি তোলায় বিভিন্ন গন্তব্যে ট্রেনের ভাড়া বৃদ্ধির এই পরামর্শ দেওয়া হয়।

“তবে যাত্রীসেবার মান ঠিক রেখে সাধারণ শ্রেনীর ভাড়া যাতে বেশি বাড়ানো না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়।”

দীর্ঘ ২০ বছর পর ২০১২ সালে বাংলাদেশে ট্রেনের ভাড়া বাড়ানো হয়, কিলোমিটার প্রতি গড় ভাড়া ২৪ পয়সা থেকে বাড়িয়ে করা হয় ৩৬ পয়সা।

সংসদ সচিবালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ট্রেনের ভাড়া বৃদ্ধি করার বিষয়টি বৈঠকে তোলা হয়। পরে সংসদীয় কমিটি এ বিষয়ে পরামর্শ দেয়।

সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশের সকল সরকারি ও বেসরকারি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে জরুরি ভিত্তিতে রেল প্রকৌশল বিভাগ চালু এবং ভবিষ্যতে একটি পূর্ণাঙ্গ রেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের সুপারিশ করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে কমিটির সভাপতি বলেন, “পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে রেল নিয়ে আলাদা ইন্সটিটিউট রয়েছে। রেলে প্রচুর দক্ষ জনবল প্রয়োজন। সেজন্য এই সুপারিশ করা হয়েছে।”

বৈঠকে ঢাকার বঙ্গবাজারের কাছে ফুলবাড়িয়া এলাকায় রেলের ২ দশমিক ৮৭ একর এবং চট্টগ্রামে স্টেশন সংলগ্ন নিউ মার্কেটের কাছে ১ দশমিক ৩৫ একর জমিতে বহুতল বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ কমিটির সদস্য রেলপথ মন্ত্রী মো. মুজিবুল হক, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এবং ইয়াসিন আলী বৈঠকে অংশ নেন।

You Might Also Like