টঙ্গীতে প্রতারণা করে দেড়শ কোটি টাকা নিয়ে চম্পট, গ্রেপ্তার ২

গাজীপুরের টঙ্গীতে প্রতারণা করে প্রায় দেড়শ কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে একদল প্রতারক। চক্রটি প্রায় ৩ হাজার নারীকে পণ্য ও নানা সুবিধা দেওয়ার কথা বলে এক মাসের মধ্যেই বিপুল এই অর্থ হাতিয়ে নেয়। এই চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- জামাল উদ্দিন খান জামান (৩৩) ও মরিয়ম বেগম নুপুর (৩৭ )। তাদের বাড়ি বরিশালের বাকেরগঞ্জ এলাকায়। মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) বিকেলে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের টঙ্গী পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এমদাদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওসি বলেন, টঙ্গীর আউচপাড়াস্থ হোসেন মার্কেটের ইউনাইটেড শপিং কমপ্লেক্সের দুটি ফ্লোর ভাড়া করে গত ৭ সেপ্টেম্বর শেখ ফরিদ নামের এক ব্যক্তিসহ আরও কয়েকজন মিলে ‘AECOS’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান খোলে। এরপর তারা প্রায় ৩ হাজার নারীর কাছ থেকে পণ্য ও নানা সুবিধা দেওয়ার কথা বলে প্রায় ১৪৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়।

ওসি আরও জানান, গত ২৬ সেপ্টেম্বর ওই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান শেখ ফরিদ এবং তার সহযোগীরা অফিস তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে তাছলিমা বেগম নিশি নামের এক নারী শেখ ফরিদসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন। পরে ওই অভিযোগের ভিত্তিতে ২৭ সেপ্টেম্বর টঙ্গী পশ্চিম থানায় একটি মামলা করা হয়। পরে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার খন্দকার লুৎফুল কবির মামলার সঙ্গে জড়িত প্রতারকদের দ্রুত গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সাব্বির হোসেন জানান, তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে মামলার এজাহারভুক্ত ওই দুই আসামিকে বরিশালের বাকেরগঞ্জ থানার প্রত্যন্ত এলাকা হতে সোমবার (৫ অক্টোবর) গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে মঙ্গলবার গাজীপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে।

You Might Also Like