ঝড় বৃষ্টির লাইভ টেলিকাস্ট প্রকাশ করল নাসা

প্রাকৃতিক বিপর্যয় মোকাবিলা করতে আরো একধাপ এগিয়ে গেল পৃথিবী। সম্প্রতি মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা প্রকাশ করেছে বিশ্বের প্রথম গ্লোবাল রেইনফল ও স্নোফল ম্যাপ, যেখানে একনজরে পৃথিবীর সব জায়গার আবহাওয়া একটি ম্যাপে প্রায় রিয়েল টাইমে ধরা পড়বে। সেক্ষেত্রে পৃথিবীর বুকে বড় বিপর্যয় এলে খুব শিগগিরি ব্যবস্থা নেওয়া যাবে বলে মনে করছেন জাকজা ও নাসার বিজ্ঞানীরা।

 

২০১৪ সালে জাপান অ্যারোসপেস এক্সপ্লোরেশন এজেন্সি (জাকজা) ও নাসার যৌথ উদ্যোগে গ্লোবাল প্রেসিপিটেশন মিজারমেন্ট মিশন তৈরি করা হয়। এর আওতায় নাসা ও অন্যান্য স্পেস সেন্টারের বেশ কিছু স্যাটেলাইট মিলে মহাকাশ থেকে পৃথিবীর আবহাওযা পর্যবেক্ষণ করে যাচ্ছে।

 

গ্লোবাল প্রেসিপিটেশন মেজারমেন্ট (জিপিএম) ৩০ মিনিট অন্তর অল্প বৃষ্টি ও তুষারপাতের পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য পাঠাতে সক্ষম। পাশাপাশি দক্ষিণ মহাসাগরের ওপর বড় ঝড়ের উৎপত্তির খবর মিলবে এই জিপিএমের মাধ্যমে। অর্থাৎ আটলান্টিক মহাসাগরের ওপর হ্যারিকেন হোক অথবা প্রশান্ত মহাসাগরের ওপরে বয়ে যাওয়া টাইফুন- পাশাপাশি দুটি তথ্যই বিস্তারিত পাওয়া যাবে।

 

জিপিএমের প্রোজেক্টের এক বিজ্ঞানী গেইল স্কোফ্রনিক জ্যাকসন বলেন, ‘একটি দেশের হাল্কা বৃষ্টির পাশাপাশি আরেকটি দেশের মৌসুমি বায়ুর সব রকম তথ্য জিপিএম দিতে থাকবে।’ তিনি আরো জানান, ‘তুষার ও বৃষ্টিপাতের বিভিন্ন রকমের বৈশিষ্ট্য থ্রিডি ভিউয়ের মাধ্যমে দেখতে পাব। এ ছাড়াও জিপিএম ভবিষ্যতবাণী করতে পারবে ঝড়বৃষ্টির পরিমাণ ও কার্যকাল।’

 

বর্তমানে নাসা চেষ্টা করছে একদম রিয়েল টাইম তথ্য পেতে, তাহলে আগেভাগে প্রাকৃতিক বিপর্যয় রুখতে অনেক সুবিধা হবে।

You Might Also Like