জ্যাককে কেন বাঁচানো হয়নি ব্যাখ্যা দিলেন নির্মাতা

হলিউডের সাড়া জাগানো সিনেমা টাইটানিক। ২০ বছর আগে দর্শকদের এই অসাধারণ সিনেমাটি উপহার দিয়েছিলেন নির্মাতা জেমস ক্যামেরন। সিনেমার বেশ কিছু দৃশ্য দর্শক হৃদয়ে নাড়া দেয়। বিশেষ করে ক্লাইমেক্স দৃশ্যে জ্যাকের (লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও) মৃত্যু মেনে নিতে পারেননি অনেকেই।

সিনেমা মুক্তির দীর্ঘ সময় পরেও জ্যাকের মৃত্যু দৃশ্যটি নিয়ে বিতর্ক রয়েই গেছে। অনেকেই মনে করেন, ইচ্ছে করলেই বাঁচানো যেত জ্যাককে। কারণ রোজ (কেট উইন্সলেট) যে পাটাতনের ওপর ভেসে ছিলেন সেখানে জ্যাকের জন্য যথেষ্ট জায়গা ছিল।

সম্প্রতি একটি ম্যাগাজিনে সাক্ষাৎকার দেন টাইটানিক সিনেমার পরিচালক জেমস ক্যামেরন। এ সময় দৃশ্যটি নিয়ে প্রশ্ন করা তাকে। জবাবে তিনি বলেন, ‘উত্তর খুবই সোজা কারণ চিত্রনাট্যের ১৪৭ নম্বর পৃষ্ঠায় বলা ছিল যে, জ্যাক মারা যাবে। খুবই সহজ। অবশ্যই এটি একটি সৃজনশীল ব্যাপার ছিল। পাটাতনটি রোজকে ভাসিয়ে রাখার জন্য যথেষ্ট বড় ছিল কিন্তু জ্যাককে নয়। আমি মনে করি সিনেমা মুক্তির ২০ বছর পর এসে এ ধরণের বিষয় নিয়ে আলোচনা করা বোকামি।’

তিনি আরো বলেন, ‘কিন্তু এতে প্রমাণ হয় সিনেমার মাধ্যমে জ্যাক এতটাই দর্শকের ভালোবাসা পেয়েছিলেন যে তার মৃত্যু দেখতে চাননি তারা। যদি সে বেঁচে থাকত তাহলে সিনেমার শেষটা অর্থহীন হয়ে যেত। সিনেমার গল্প মৃত্যু ও আলাদা হয়ে যাওয়ার গল্প নিয়ে। তাকে মরতে হতো। সেটা জাহাজের চিমনি মাথায় পড়ে অথবা যেভাবে হয়েছে, তাকে ডুবতে হতো। একেই বলে শিল্প। শিল্পগুণ বজায় রাখতে এই ঘটনাগুলো ঘটে, এটি পদার্থ বিজ্ঞানের নিয়মে হয় না।’

এর আগে সংবাদমাধ্যম ‘দ্য মিরর’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডেলেইডের ওয়েস্টমিনস্টার স্কুলের ১০ ছাত্রী অঙ্কের হিসেব কষে জানান— জ্যাককে রীতিমতো বাঁচানো যেত। এই ছাত্রীদের বক্তব্য— জ্যাক আর রোজ যদি তাদের শরীরে লাইফ জ্যাকেট পরে পাটাতন ধরে ভেসে থাকত, তা হলে তাদের মরতে হতো না। ন্যাশনাল ম্যাথস ট্যালেন্ট কোয়েস্টে অংশ নেয়া ওই ছাত্রীরা জানায়, দরজার প্লবতাকে হিসেব করে তারা দেখেছে, যদি তার উপরে লোক চড়ে বসে, তবে তা ভেসে থাকার ক্ষমতা কমে না। বরং তা বেড়ে যায়। সুতরাং জ্যাক ও রোজ দুজনেই বাঁচতে পারতেন। আর সিনেমায় দেখা যায়, জ্যাক তলিয়ে যাওয়ার খানিক পরেই রোজকে উদ্ধার করে একটি লাইফ বোট। সুতরাং জ্যাক পাটাতনে থাকলে সেও উদ্ধার পেত।

You Might Also Like