জ্বর-কাশিতে মৃত ব্যক্তির লাশ দাফন করলো পুলিশ

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় জ্বর, সর্দি-কাশি নিয়ে মৃত ব্যক্তির লাশ দাফন পুলিশের ব্যবস্থাপনায় সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ময়দানহাট্রা ইউনিয়নের পাকুড়তলা মাজারে তাকে দাফন করা হয়। এ সময় বগুড়ার সহকারী পুলিশ সুপার খুদরত ই খুদা শুভ, উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমেদ রিজু, ওসি মিজানুর রহমানসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। মৃত ব্যক্তির আত্মীয়-স্বজন বা এলাকাবাসীকে দাফনে অংশ নিতে দেখা যায়নি।

গলাব্যথা, জ্বর, সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত হয়ে তিনি শনিবার সকালে নিজ বাড়িতে মারা যান। এরপর জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে লোক এসে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কিনা তা জানার জন্য নমুনা সংগ্রহ করেন। এতে এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

তখন আত্মীয় বা এলাকাবাসী লাশ দাফনে এগিয়ে আসেনি। উপরুন্ত তাকে এলাকায় দাফনে বাধা দেয়।

দাফন শেষে সহকারী পুলিশ সুপার খুদরত ই খুদা শুভ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। সেই স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, সকাল থেকে বাধা-বিপত্তি আর নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে রাত পৌনে ৮টার দিকে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে পুলিশের উদ্যোগে লাশের দাফন হয়েছে।

তিনি লেখেন, দাফনে বাধা দেওয়ার খবর শোনামাত্র সেখানে অতিরিক্ত ২ প্লাটুন স্পেশাল আর্মড ফোর্স পাঠানো হয়। শিবগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান মানুষকে বুঝিয়ে ঘরে ফেরান। কিন্তু কবর খোঁড়ার লোক কোথায়? শিবগঞ্জ থানার এসআই মোস্তাফিজ, এসআই আহসান দুইজনকে সঙ্গে নিয়ে কবর খোঁড়েন। অবশেষে লাশ দাফন হলো।

‘‘আমরা দূর থেকে দাঁড়িয়ে দোয়া পড়লাম।’’

You Might Also Like