জিয়ার শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে ১০ দিনের কর্মসূচি

দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৮তম শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে ২২ মে থেকে ৩১ মে পর্যন্ত ১০ দিনব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপির)।

কর্মসূচিগুলোর মধ্যে রয়েছে বিএনপির পক্ষ থেকে শহীদ জিয়ার মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন, ওলামা দলের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল, ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প, দুস্থদের মাঝে খাবার ও পোশাক বিতরণ ইত্যাদি।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক যৌথসভা শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের একথা জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার বাংলাদেশের জনগণের সকল অধিকার কেড়ে নিয়ে দেশকে একটি অকার্যকর নির্ভরশীল রাষ্ট্রে পরিণত করার পাঁয়তারা করছে। তিনি বলেন, যিনি দীর্ঘকাল গণতন্ত্রের জন্য আন্দোলন সংগ্রাম করেছেন, সেই নেত্রীকে অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে আটকে রেখেছে। শুধুমাত্র গণতন্ত্রের কর্মী হওয়ায় গণতন্ত্রের বহু নেতাকর্মীকে হত্যা করা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ছিলেন বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা। একদলীয় শাসন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে তিনি বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছেন। আমরা যথাযোগ্য মর্যাদায় তার ৩৮তম শাহাদাৎবার্ষিকী পালন করবো।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিষ্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, মজিবুর রহমান সারোয়ার, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খাইরুল কবির খোকন প্রমুখ।

You Might Also Like