জাল নোট নিয়ে উদ্বেগে ভারত সরকার

ভারতের নতুন নোটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জালিয়াতরা ভেঙ্গে ফেলতে সক্ষম হয়েছে কিনা তা নিয়ে তদন্ত চলছে। লোক সভাকে এ কথা জানিয়েছে নয়াদিল্লি সরকার।

২০১৬ সালের নভেম্বরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট বাতিল করেন। ভারতে প্রথম বারের মতো চালু করা হয় ২০০০ রুপির নোট ।

লোক সভায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দেয়া জবাবে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালের ৯ নভেম্বর থেকে গত মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত ভারতে ২০০০ রুপির ৩৩৪৬টি জাল নোট উদ্ধার করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার ভারতের উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব রাজীব মিশ্রিসহ অর্থ এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পদস্থ কর্মকর্তারা এতে অংশ নেন।

এর আগের খবরে বলা হয়েছে, ভারতের ২০০০ রুপির নোটে সামনে ১৩টি এবং পেছনে ৪টিসহ মোট ১৭টি নিরাপত্তা ব্যবস্থা বসানো রয়েছে। এর মধ্যে সামনের দু’টো এবং পেছনে চারটি নিরাপত্তা ব্যবস্থা দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের সহায়তা করার জন্য রাখা হয়েছে। ২০০০ রুপির জাল নোটে এ নিরাপত্তা ব্যবস্থার অর্ধেকের বেশি প্রায় নিখুঁত ভাবে নকল করা হয়েছে।

নোটে নতুন নিরাপত্তা ব্যবস্থা বসানো আয়োজন সম্পন্ন করতে পাঁচ থেকে ছয় বছর সময় লেগে যায়। ভারতের নতুন নোট দ্রুত ছাপানোর কারণে সে সময় পাওয়া যায় নি। তাতে পুরানো নিরাপত্তা ব্যবস্থাই বসাতে হয়েছে। ২০০৫ সালের পর ভারতীয় নোটের নিরাপত্তা ব্যবস্থার আর কোনো পরিবর্তন করা হয় নি বলে এর আগে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে।

এদিকে, উন্নত দেশগুলোতে প্রতি ৩ থেকে ৪ বছরের মধ্যে নোটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিবর্তন করা হয়। এ অবস্থায় ভারতীয় নোটের নিরাপত্তা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে একই ব্যবস্থা নেয়া অনিবার্য হয়ে উঠেছে বলে দেশটির সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছ।

You Might Also Like