‘জামায়াত নিষিদ্ধ করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন’

যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতি নিষিদ্ধ করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি। আদালতের মামলা শেষ হওয়ার সাথে সাথে জামায়াত ও যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতি নিষিদ্ধ হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু এবং উন্নয়নের রূপকার-জননেত্রী শেখ হাসিনার কার্যকাল’ শীর্ষক এক আলোচনা সভার উদ্বোধনী বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

আব্দুল্লাহ আল কায়সারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আসম ফিরোজ, আওয়ামী লীগ নেতা ড. সিদ্দিকুর রাহমান, অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, এমএ করিম, মো. ফজলুল হক, আনিসুর রহমান প্রমুখ।

মোজাম্মেল হক বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আন্দোলন সংগ্রামের সংক্ষিপ্ত চিত্র তুলে ধরে বক্তব্যে বলেন, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলাটিই বাংলাদেশের স্বাধীনতার একটি নেতৃত্বের চিত্র ফুটে ওঠে। জাতির পিতার অবদানকে যারা অস্বীকার করে তারা বাংলাদেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না এবং তাদের এ দেশে রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই।

জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আসম ফিরোজ বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ৯২ দিন হরতাল-অবরোধ দিয়ে দেশবাসীকে জিম্মি করেছিলেন। তারেক ও বেগম জিয়া ২১ আগস্ট জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিলেন বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিদেরকে জিয়াউর রহমান চাকরি দিয়ে পুনর্বাস করেছিলেন।

আ স ম ফিরোজ বলেন, খালেদা জিয়া বুঝতে পেরেছিলেন শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে যে পরিকল্পনা করেন, তা বাস্তবায়ন করতে পারলে তাকে আর রোখা যাবে না। তাই শেখ হাসিনাকে গ্রেনেড মেরে হত্যা করার ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল। ২০০৮ সালে শেখ হাসিনা আবার ক্ষমতায় আসলে ষড়যন্ত্র করে বিডিআর বিদ্রোহ ঘটানো হয়।

খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে চিফ হুইপ আরো বলেন, আপনার দল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আসলো ঠিকই ; কিন্তু ষড়যন্ত্র করে নির্বাচন শুরুর কিছুক্ষণ পরেই নির্বাচন বয়কট করলো। শুধু আওয়ামী লীগকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্যই বানোয়াট অভিযোগ তুলে সিটি নির্বাচন বয়কট করা হয়। কিন্তু তা সফল হয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনেও আওয়ামী লীগকে হারাতে পারবেন না। দেশের মানুষ উন্নয়ন চায় ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের কল্যাণ চায় তাই বার বার ভোট দিয়ে ক্ষমতায় বসায় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

You Might Also Like