জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভায় নেতাকর্মীদের ঢল

নিরপেক্ষ সরকারের দাবিতে গড়ে ‍উঠা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রথম জনসভায় নেতাকর্মীদের ঢল নেমেছে। জনসভাস্থল ইতোমধ্যেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়েছে গেছে। জনসভাস্থলের আশপাশের সড়কে লোকে লোকারণ্য।

পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে বুধবার দুপুর ২টায় সিলেটের রেজিস্টারি মাঠে এ জনসভা শুরু হয়।

‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে শুভেচ্ছা-স্বাগতম’, ‘মুক্তি মুক্তি মুক্তি চায়, আমার মায়ের মুক্তি চায়’, এমন স্লোগানে জনসভাস্থল মুখর করে তুলেছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, কৃষক দল, মহিলা দল, গণফোরাম, জেএসডি, নাগরিক ঐক্যসহ বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে মিছিলগুলো নগরীতে ঢুকছে।

এছাড়া মাঠের আশপাশে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিশাল আকৃতির ছবি সম্বলিত ব্যানার-ফেস্টুন শোভা পাচ্ছে। নেতাকর্মীরা বিএনপি চেয়ারপারসনের নিঃশর্ত মুক্তি চান। চান গুম হওয়া নেতা ইলিয়াস আলীর সন্ধান। তবে জনসভায় একটু বাইরে ঐক্যফ্রন্টেরও অনেক ব্যানার ফেস্টুন দেখা যাচ্ছে।

এদিকে জনসভায় আসতে বাধা দেয়ার অভিযোগ করেছে স্থানীয় বিএনপির নেতারা। তাদের অভিযোগ গত রাতে বাসায় বাসায় অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। ৬৮ জন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। এছাড়াও ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা নানা হুমকি-ধামকি দিয়েছেন।

সিলেট বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ অভিযোগ করে বলেন, ‘জকিগঞ্জ থেকে আসা একটি মিছিলকে শহরতলীর বটেশ্বর নামক এলাকায় আটকে দিয়েছে পুলিশ। তাদের সমাবেশে আসতে দেয়া হচ্ছে না।’

বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্ঠা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদিরও অভিযোগ করেন, ‘সিলেটের সবকটি প্রবেশমুখে পুলিশ তল্লাশি চালাচ্ছে। এতে করে লোকজন সমাবেশ আসতে ভয় পাচ্ছে।’

You Might Also Like