ছিটমহল সমস্যা সমাধান না হলে আদালতে যাওয়ার হুমকি

বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির নেতারা দুই দেশের ভারত সরকারের নিকট অবিলম্বে ছিটমহল সমস্যা সমাধানের দাবি জানিয়ে বলেছেন আমরা নাগরিকত্ব চাই, আমরা মুক্তি চাই। বক্তারা বলেন, আমরা সাধারন মানুষ ছিটমহল সমস্যা দুদেশের সরকার কিভাবে সমাধান করবে সেটা তাদের বিষয় তবে জমি থেকে মানুষ বড় আমরা কিন্তু মানুষ। দীর্ঘ ৬৭ বছর শুধু আলোচনা হয়েছে কিন্তু বাস্তবায়ন হয়নি। এখন আমরা এর বাস্তবায়ন চাই।

বৃহস্পতিবার দুপরে তিনবিঘা করিডোরে ভারত বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির নেতারা এক যৌথ সমাবেশে এসব কথা বলেন। করিডোরের পুর্ব গেটের বাংলাদেশ অভ্যন্তরে করিডোরের দুই পাশে দুটি মাইক লাগিয়ে দহগ্রাম আঙ্গরপোতা বাসীর সাথে সংহতি প্রকাশ করে যৌথ সমাবেশের কাজ শুরু হয়।

উভয় দেশের ১৬২টি ছিটমহলের বাসিন্দারা ২৬ জুনকে মুক্ত দিবস পালনের পাশাপাশি অবরুদ্ধ ছিটমহলগুলোকে ‘বিনিময় চুক্তি’ বাস্তবায়নের দাবিতে বাংলাদেশ- ভারত যৌথ এ সমাবেশে করেন। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির সমন্বয়ক গোলাম মোস্তফা ভারতীয় ছিটমহলেরসমন্বয়ক দীপ্তিমান সেনগুপ্ত আইন বিষয়ক সম্পাদক আহসান হাবীব দহগ্রাম আঙ্গরপোতা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রেজানুর রহমান রেজা।

আহসান হাবীব বলেন, আমরা আগামী ছয় মাসের মধ্যে ছিটমহল সমস্যার সমাধান চাই তা না হলে ভারতীয় সংবিধানের আর্টিকেল ৭ অনুযায়ী ভারতের উচ্চ আদালতে মামলা করা হবে। এ জন্য মামলার যাবতীয় কাগজ পত্র আমাদের তৈরি করা হয়েছে।

এদিকে ২৬ জুনকে শহীদ দিবস হিসেবে ঘোষণা করে ভারতীয় জনতা পার্টি বিজেপি সুধীরের সমাধীস্থলে এক সমাবেশ করেন। সমাবেশে বিজেপি নেতারা বক্তব্য রাখেন।

You Might Also Like