চোলকে গ্রেপ্তার মালয়েশিয়ার ষড়যন্ত্র

উত্তর কোরিয়ার প্রধান নেতা কিম জং-উনের সৎ ভাই কিম জং-ন্যামকে হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে সে দেশের নাগরিক রি জং চোলকে গ্রেপ্তার মালয়েশিয়ার ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেছেন চোল।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে তিনি জানান, তাকে আটক একধরনের ষড়যন্ত্র ছিল। প্রজাতন্ত্রের সম্মানহানি করতেই এটা করা হয়েছিল।

শুক্রবার মালয়েশিয়া থেকে তাকে বিতাড়িত করার পর চীনের বেইজিংয়ে অবস্থিত উত্তর কোরিয়ার দূতাবাসের বাইরে তিনি এ মন্তব্য করেন।

যথেষ্ট তথ্য-প্রমাণের অভাবে তাকে পুলিশ হেফাজত থেকে মুক্তি দেওয়া হয়। তিনি অভিযোগ করেন, তার কাছ থেকে জোর করে স্বীকারোক্তি আদায়ের চেষ্টা করেছিলেন মালয়েশিয়ার তদন্তকারীরা।

চোল বলেন, ‘যদি আমি সব স্বীকার করতাম, তাহলে তারা মালয়েশিয়ায় ভালোভাবে জীবনযাপনের ব্যবস্থা করে দিত।’

তিনি আরো বলেন, ‘যখন আমাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল, তখনো একটি ফাঁদ পাতা হয়েছিল। আর এই ফাঁদটা ছিল আমার দেশের সম্মান নষ্ট করা।’

বিমানবন্দরের কাছ থেকে পুলিশ তার ব্যক্তিগত গাড়ি উদ্ধার করেছিল। এ বিষয়ে চোল জানান, গাড়িটি তার গাড়ির গ্যারেজ থেকেই পুলিশ নিয়েছিল।

মালয়েশীয় পুলিশ জানায়, চোল একজন রসায়ন বিশেষজ্ঞ কিন্তু তিনি সাবান তৈরিতে প্রয়োজনীয় উপাদান আমদানি করতেন।

চোল তিন বছর ধরে মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন। তবে রয়টার্সের তথ্য অনুযায়ী গত ৬ ফেব্রুয়ারি সেখানে তার কাজের অনুমতি শেষ হয়েছে।

তিন সপ্তাহ আগে মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরের কাছে কিম জং-ন্যাম খুন হন। এ বিষয়ে মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষ তাদের তদন্ত অব্যাহত রেখেছে। মালয়েশিয়ায় অবস্থিত উত্তর কোরিয়া দূতাবাসের একজন কর্মকর্তাসহ বেশ কয়েকজনকে খুঁজছে মালয়েশিয়া।

You Might Also Like