চেলসিকে জিততে দিলেন না কাভানি, ড্র বায়ার্নেরও

চলছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ। তাই ক্রিকেটপ্রেমীরা ব্যস্ত তাদের প্রিয় খেলা উপভোগ করতে। এর মাঝেও ফুটবলের উত্তেজনাপূর্ণ আসর চ্যাম্পিয়নস লিগের খোঁজ-খবর না রাখলে কি আর হয়? কেননা এখানে খেলছে ইউরোপের সেরা দলগুলো। তারই ধারাবাহিকতায় ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে মঙ্গলবার রাতে লড়াইয়ে নেমেছিল দুই জায়ান্ট চেলসি ও প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)।

কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগের খেলায় তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার পর ম্যাচটি অবশ্য শেষ হয়েছে ১-১ গোলের ব্যবধানে নিষ্প্রাণ ড্রয়ে! শুরুতে এগিয়ে থাকলেও চেলসিকে জিততে দেননি পিএসজির তারকা স্ট্রাইকার এডিনসন কাভানি।

প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুটা বেশ ভালোই ছিল চেলসির। স্বাগতিক শিবিরে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের মহড়া বসান হোসে মরিনহোর শিষ্যরা। তবে গোলের দেখা পেতে সফরকারীদের অপেক্ষা করতে হয়েছে ৩৫ মিনিট পর্যন্ত। এ সময়ে স্বাগতিক দর্শককে নিস্তব্ধ করে দিয়ে চেলসিকে এগিয়ে নেন ডিফেন্ডার থেকে স্ট্রাইকার বনে যাওয়া ব্রানিস্লাভ ইভানোভিচ। তার গোলে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে বিরতিতে যায় ইংলিশ জায়ান্ট ক্লাবটি।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে এসে খেই হারিয়ে ফেলেন হোসে মরিনহোর শিষ্যরা। যা হওয়ার তা-ই হলো। সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে ভুল করেননি ইব্রাহিমোভিচ-লুইজ-কাভানিরা। ব্লুজদের ওপর ক্রমে চড়াও হয়ে উঠতে থাকেন তারা।

ভালো খেলার ফলও অবশ্য হাতেনাতে পেয়ে যান স্বাগতিকরা। ম্যাচের ৫৪ মিনিটে ম্যাক্সওয়েল বল বাড়িয়ে দেন মাতৌদির দিকে। ঝুঁকি না নিয়ে তিনি বলটি ধরিয়ে দেন কাভানিকে। দুর্দান্ত হেডে গোল করে মরিনহোর বুকে কাঁপন ধরান পিএসজির এই উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার। তাই ১-১ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে চেলসিকে।

এদিকে, লিগের অপর ম্যাচে জয়ের মুখ দেখেনি শক্তিশালী বায়ার্ন মিউনিখও। কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে তারা তুলনামূলক দুর্বল দল শাখতার দানেক্সের সঙ্গে গোলশূণ্য ড্র নিয়েই মাঠ ছেড়েছে।

You Might Also Like