চট্টগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়বাসীদের উচ্ছেদ

চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন পাহাড়ের পাদদেশ থেকে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারী বাসিন্দাদের উচ্ছেদ শুরু করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় মতিঝর্ণা (পানির ট্যাংক) এলাকার পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারী পরিবারগুলোকে সরিয়ে নেয়ার কাজ চলছে।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এসএম আব্দুল কাদের জানান, পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের সরে যেতে আমরা কার্যক্রম চালাচ্ছি। আমরা তাদেরকে উচ্ছেদ করে নিরাপদ স্থানে পাঠিয়ে দিচ্ছি। পর্যায়ক্রমে পাহাড়ে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ বসতি স্থাপনকারীদের সরিয়ে দেওয়া হবে।

খুলশী থানার এস আই জাহিদ হোসেন বলেন, সকাল থেকে খুলশী থানার লালখান বাজারের মতিঝর্ণা (পানির ট্যাংক) এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছি। এ অভিযানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এসএম আব্দুল কাদের। পুলিশের শতাধিক সদস্য এ উচ্ছেদ অভিযানে অংশ নিয়েছেন বলে জানান তিনি।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, নগরীতে ১১টি পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণভাবে ৬৬৬টি পরিবার বসবাস করছে বলে চিহ্নিত করেছে জেলা প্রশাসন।

উল্লেখ্য, প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে চট্টগ্রাম মহানগরী ও আশেপাশের এলাকায় পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটে আসছে। এর ২০০৭ সালের ১১ জুন গরিবুল্লাহ শাহ মাজারের পিছনে, চট্টগ্রাম সেনানিবাস পাহাড় ও কাইচ্ছা ঘোনা পাহাড় ধসে ১২৭ জন মারা যায়। এরপর পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন করা হয়। ওই ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদনেও পাহাড় ধস রোধে এবং ঝুঁকিপূর্ণ বসতি উচ্ছেদে ৩৬ দফা সুপারিশ করা হলেও গত সাত বছরেও সে সুপারিশগুলো বাস্তবায়ন করতে পারেনি পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটি।

You Might Also Like