ঘর ছাড়ছেন বুরুন্ডির হাজার হাজার মানুষ

অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে বুরুন্ডির সরকারি বাহিনীর অভিযান শুরুর আগ মুহূর্তে রাজধানী বুজুমবুরায় ঘর ছাড়তে শুরু করেছেন হাজার হাজার অধিবাসী।
চলতি বছর এপ্রিলে প্রেসিডেন্ট পিয়েরে এনকুরুনজিজার তৃতীয় মেয়াদে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্তের পরপরই দেশটিতে সহিংসতার সূচনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সর্বশেষ শনিবার (০৭ নভেম্বর) দিনগত মধ্যরাত পর্যন্ত অবৈধ অস্ত্র সমর্পণের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিলেন তিনি।
এরই সূত্র ধরে ডেডলাইন শেষে হওয়ার আগ মুহূর্তে ঘর ছাড়তে শুরু করেছেন অনেকে। অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের নামে সরকারি বাহিনীর সদস্যদের উৎপীড়ন শুরু হবে এবং চলমান আন্দোলন দমনের নামে প্রেসিডেন্ট আসলে তার প্রতিহিংসা বাস্তবায়ন করবেন বলে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের কাছে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বুজুমবুরা ও এর আশেপাশের এলাকাগুলোর অধিবাসীরা।
এর আগে চলতি সপ্তাহের প্রথমদিকে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুন বুরুন্ডিতে চলমান পরিস্থিতির অবসান কামনা করেন। ব্রাসেলস ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংকট ব্যবস্থাপণা বিষয়ক একটি সংস্থা দেশটির এ পরিস্থিতিকে ১৯৯৪ সালে রুয়ান্ডায় গণহত্যার পূর্ববর্তী সময়ের ‘অনুরূপ’ বলে মন্তব্য করেছে।
বিভিন্ন সংস্থা বলছে, বুজুমবুরাসহ এর পার্শ্ববর্তী চিবিতোকে ও মুতাকুরা থেকেও ঘর ছাড়তে শুরু করেছেন অধিবাসীরা। এই অঞ্চলগুলো এপ্রিল থেকে সরকার বিরোধী আন্দোলনে উত্তাল।
মুতাকুরার একজন অধিবাসী মার্গারিতে বিজিরা একটি আন্তর্জাতিক সংবাদসংস্থাকে বলেছেন, বাকিদের মতো আমিও ঘর ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। চারিদিকে শুধু ভয় বিরাজ করছে। তবে আমি এখনও ঈশ্বরে বিশ্বাস করি। একদিন এ পরিস্থিতির অবসান ঘটবেই।

You Might Also Like