গ্রাম পুলিশের ধর্ষণের শিকার স্বামী পরিত্যক্তা

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় দৈহারী ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ (চৌকিদার) কিশোর মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার সকালে কিশোরকে পিরোজপুর কোর্টে ও ধর্ষণের শিকার নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান নেছারাবাদ থানার ওসি আবীর মোহাম্মদ হোসেন।

চিলতলা গ্রামের স্বামী পরিত্যক্তা ও দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা হয়। গ্রাম পুলিশ কিশোর মণ্ডল বাশতলা গ্রামের কালীপদ মণ্ডলের ছেলে।

জানা গেছে, কিশোর মণ্ডল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে চিলতলা গ্রামের ওই নারীকে মাসের পর মাস ধর্ষণ করে। এর মধ্যে ওই ধর্ষিতা নারী তিন মাসের অন্তসত্ত্বা হলে কিশোর মণ্ডল তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেন। পরে ধর্ষণের শিকার ওই নারী মঙ্গলবার রাতে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।