গো-রক্ষার নামে মানুষ হত্যা রুখতে একাট্টা পশ্চিমবঙ্গের জনগণ : আইন প্রণয়নের দাবী কেন্দ্রীয় সরকারে

এসএ হামিদ, পশ্চিমবঙ্গ থেকে: গো-রক্ষার নামে সাধারণ মানুষকে হত্যা করার যে রেওয়াজ শুরু হয়েছে এ দেশে, তার তীব্র নিন্দা করেছেন এসআইও পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সভাপতি ওসমান গণি। কলকাতা রামলীলা ময়দানে এক জন সমাবেশে তিনি বলেন, “সারা দেশ জুড়ে দলিত, মুসলিম সহ পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উপর আক্রমণ, গুম, খুন, হত্যালীলা আজ খুব সাধারণ ব্যাপারে পরিণত হয়েছে। গত সপ্তাহে এ রাজ্যের জলপাইগুড়িতেও হাফিজুল সেখ ও আনোয়ার হোসেনকে গরু চুরির সন্দেহে হত্যা করা হয়েছে। শুধু ধর্মীয় কারণেই আজ অনেক মুসলিমের উপর আক্রমণ, হামলা করা হয়েছে, হচ্ছে। শুধু মুসলিমই নয়, দলিত ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীও এ জাতীয় ঘৃণা-বিদ্বেষের শিকার হয়েছে। দেশপ্রেমের নামে আবার কখনও উগ্র জাতীয়তাবাদের নামে ঘৃণা-বিদ্বেষের শিকার হতে হয়েছে তাঁদের। তাই, আমাদের দাবী, অবিলম্বে গো-রক্ষার নামে গেরুয়া বাহিনীর তাণ্ডব রুখতে কেন্দ্রীয় সরকারকে নতুন আইন প্রণয়ন করতে হবে।”

এদিন সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক ইমাম হোসেন বলেন, “দেশে ঘটে যাওয়া অনেক ঘটনা মানবীয় মর্যাদা ক্ষুণ্ণ হওয়ার ইঙ্গিত বহন করে, যেমন- রাজস্থানের আলওয়ারে গো রক্ষার নামে পেহলু খান ও তার পরিবারের উপর আক্রমণ, যেখানে তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয় এবং তার দুটো স্নেহের সন্তান গুরুতরভাবে জখম হয়। রাস্তায়, পথে, ট্রেনে মুসলিমদের উপর এ জাতীয় আক্রমণ আজ অতি সাধারণ ব্যাপার।”

কলকাতা শহীদ মিনার থেকে পদযাত্রা শেষে আজ এসআইও পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য তত্বাবধায়ক মুহাম্মদ নুরুদ্দিন শাহ বলেন, ‘মায়ানমারে বাচ্চা শিশুরা আগুনে দগ্ধ হয়ে মরছে, খেতে পাচ্ছে না, কিন্তু কোন প্রতিবেশীদেশ এগিয়ে আসছে না। ফলে, মানবীয় মর্যাদা লুণ্ঠিত হচ্ছে। সে বাপারটিও আমাদের ভুলে গেলে চলবে না।’

এপিডিআর এর সহকারি রাজ্য সভাপতি রঞ্জিত শুর বলেন, ‘আগের সরকারের আমলেও অন্যভাবে মুসলমানদের অধিকার হরণ করা হোত। মোদির আমলে এখন সেটা সরাসরি করা হচ্ছে।’

মীযান পত্রিকার সম্পাদক, ডা: মসিহুর রহমান বলেন, ইউপিএ সরকারের প্রকল্পকে ছেঁটে ফেলছে বর্তমান সরকার। শিক্ষাখাদে অর্থ বরাদ্দ এমনহারে কমিয়েছে যা আফ্রিকার গরিব দেশ গুলিকেও হার মানায়। তাই, শিক্ষাখাতে বরাদ্দ বাড়াতে ছাত্র সংগঠনগুলিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

এদিনের সমাবেশে হাজির ছিলেন, এসআইও অফ ইন্ডিয়ার কেন্দ্রীয় সম্পাদক মাওলানা আবদুল ওদুদ, ছাত্র পরিষদের রাজ্য সম্পাদক অনাবিল গুহ, এআইএসএফের যুগ্ম রাজ্য সম্পাদক সৈকত গিরি , পিএসইউ ছাত্র সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক মহম্মদ সাইফুল্লাহ, সমাজসেবী সুখনন্দন আহলুআলিয়া ও মানিক সমাজদার, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক শাহনাওয়াজ আলি রায়হান, মানবাধিকার সংগঠন এপিসিআর-এর রাজ্য কনভেনর আবদুস সামাদ প্রমুখ।

গত ১৬-৩০ আগস্ট ২০১৭ এসআইও সারা দেশ জুড়ে “নিপীড়ন নয়, মর্যাদা চাই – হিংসার বিরুদ্ধে সোচ্চার হই” শিরোনামে মানবীয় মর্যাদা প্রচারাভিযান (Human Dignity Campaign) পরিচালনা করছে। তারই অংশ হিসাবে আজকের পদযাত্রা ও জন সমাবেশ।

You Might Also Like