গোপালগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে রিক্তা আক্তার (১৪) নামে সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। নিহত ওই ছাত্রী মামা বাড়ি থেকে ফেরার পথে এ নৃশংসতার শিকার হয়।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার সর্দি গ্রামের একটি ভিটা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত রিক্তা উপজেলার সর্দি গ্রামের রেজ্জাক শেখের মেয়ে ও মুকসুদপুরের দিগনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

সিন্দিয়াঘাট পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক গিয়াস উদ্দিন জানান, ওই স্কুল ছাত্রী ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানার গঙ্গাধরদি গ্রামের মামাবাড়ি থেকে নিজবাড়িতে আসছিল। কিন্তু দীর্ঘ সময়েও সে বাড়িতে না আসায় খোঁজাখুজি শুরু করে স্বজনেরা। এক পর্যায়ে, রাতে বাড়ি থেকে প্রায় আধাকিলোমিটার দূরের একটি পরিত্যক্ত ভিটা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

তিনি আরো জানান, ধারণা করা হচ্ছে তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হতে পারে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাশ্ববর্তী ফতেপট্টি গ্রামের ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

ময়না তদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ মঙ্গলবার দুপুরে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

You Might Also Like