গোপালগঞ্জে অপহৃত ভারতীয় নাগরিক উদ্ধার

গোপালগঞ্জে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে অপহরণ করা ভারতীয় নাগরিক দিনেশ বৈরাগীকে (৩৬) উদ্ধার করেছে পুলিশ।

 

সোমবার গভীর রাতে সদর উপজেলার গোপীনাথপুর এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ।

 

এর আগে গত শনিবার রাত ৯টার দিকে গোপীনাথপুর উত্তরপাড়া গ্রাম থেকে তাকে অপহরণ করা হয়।

 

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গোপীনাথপুর উত্তরপাড়া গ্রামের ওমর মোল্যার ছেলে আহাদ মোল্যা (২৮) অবৈধভাবে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা শহরের বড়বাজার এলাকায় চটের ব্যবসা করতেন। সেখানে এক সন্তানের জননী বিধবা ছুটকি ওরফে রিয়ার (২৫) সঙ্গে আহাদ মোল্যার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

 

চার মাস আগে ছেলেকে কলকাতায় রেখে আহাদের সঙ্গে ছুটকি গোপীনাথপুর গ্রামে চলে আসেন। আহাদের বাড়িতে বসেই পরিচয় গোপন করে ছুটকি হালিমা নাম ধারণ করে আহাদকে বিয়ে করেন। তারপর থেকে তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ঘরসংসার করছিলেন। কিন্তু এক সপ্তাহ আগে কলকাতায় আহাদের ব্যবসায়ী পার্টনার একই গ্রামের আবদুল্লাহ সঙ্গে ছুটকির স্বজন দিনেশ বৈরাগী ছুটকিকে ভারতে ফিরিয়ে নিতে গোপীনাথপুর আসেন। এ সময় তিনি গ্রামের কুটি মিয়ার বাড়িতে আশ্রয় নেন।

 

বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ভারতীয় নাগরিককে অপহরণের পরিকল্পনা করা হয়। শনিবার রাত ৯টার দিকে ওই গ্রামের শাহাবুদ্দিন মিয়ার ছেলে জুয়েল মিয়া ও আলীম শরীফের নেতৃত্বে মুখোশধারী আরো পাঁচ-ছয়জন লোক নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে কুটি মিয়ার বাড়ি থেকে মারধর করতে করতে টেনেহিঁচড়ে ওই ভারতীয় নাগরিককে অপহরণ করে।

 

এ ব্যাপারে গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা জানিয়েছেন, এ ঘটনায় ভারতীয় নাগরিক দিনেশ বৈরাগীর বিরুদ্ধে অবৈধ অনুপ্রবেশকারী হিসেবে এবং তাকে যারা অপহরণ করেছিল তাদের নামে অপহরণ মামলা হয়েছে। ভারতীয় ওই নাগরিককে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে এবং অপহরণকারী জুয়েল, আলীমসহ অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

You Might Also Like