গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

বরিশালের আগৈলঝড়া উপজেলায় আয়েশা বেগম (২০) নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ করেছে নিহতের পরিবার।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আয়েশার মৃত্যু হয়। আয়েশা গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার বান্দাবাড়ি গ্রামের ফজলুল কাজীর মেয়ে।

এদিকে আয়েশার মৃত্যুর পর থেকেই পলাতক রয়েছে তার স্বামী সাইদুল মৃধাসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

আয়েশার বাবা ফজলুল কাজী জানান, আগৈলঝড়ার বাকাল গ্রামের আলতাফ মৃধার ছেলে সাইদুল মৃধার সঙ্গে তার মেয়ের বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকেই কারণে-অকারণে আয়েশাকে মারধর করত তার স্বামী। এরই মধ্যে গত ২০ দিন আগে আয়েশা একটি সন্তান জন্ম দেয়।

তিনি অভিযোগ করেন, রোববার রাতভর তার মেয়ের ওপর নির্যাতন চালানো হয়। এক পর্যায়ে আয়েশার মুখে বিষ ঢেলে দেওয়া হয়। এতে সে গুরুতুর অসুস্থ হয়ে পড়লে সোমবার বেলা ১১টায় ওকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভর্তি থেকে আয়েশার মৃত্যু পর্যন্ত তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন হাসপাতালে আসেনি।

আগৈলঝড়া থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম জানান, ইতোপূর্বে এ ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়া গেছে। লাশের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনের পর জানা যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা।

You Might Also Like