গায়েহলুদের অনুষ্ঠানে এসিড নিক্ষেপ, বরসহ ৫ জন দগ্ধ

গায়েহলুদের অনুষ্ঠানে বরকে এ ছুড়ে মেরেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় বরসহ দগ্ধ হয়েছেন পাঁচজন। এর মধ্যে দুজন শিশুও রয়েছে। বুধবার রাত ১২টার দিকে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সরকারকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

দগ্ধ ব্যক্তিরা হলেন- বর সেলিম সরকার (২৮), তার ভাতিজি শাহীনা আক্তার (২৫), তহুরা (১৯), বোনের ছেলে-মেয়ে সিয়াম (৬), রাবেয়া (৮)।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, দগ্ধ ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

বার্ন ইউনিটের আবাসিক সার্জন পার্থ শংকর পালের ভাষ্য, এসিডে তারা দগ্ধ হয়েছেন। বর সেলিম সরকারের মুখের একপাশসহ সারা শরীরের ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে। শিশু রাবেয়া আক্তারের মুখসহ শরীরের ৬ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাদের অবস্থা গুরুতর। দগ্ধদের ক্ষতচিহ্ন সারা জীবন বয়ে বেড়াতে হতে পারে বলে তার ভাষ্য।

সখীপুর থানা ও গ্রামবাসীর ভাষ্য, সেলিম সরকারের সঙ্গে একই উপজেলার সখীপুর আনন্দবাজার গ্রামের এক মেয়ের আজ বৃহস্পতিবার বিয়ে হওয়ার কথা।  বুধবার সন্ধ্যা থেকে বর সেলিমের বাড়িতে গায়েহলুদের অনুষ্ঠান চলছিল। রাত ১২টার দিকে কয়েকজন বাড়িতে ঢুকে জেনারেটরের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। এ সময় চারপাশ অন্ধকার হয়ে যায়। দুর্বৃত্তরা বর সেলিমকে লক্ষ্য করে এসিড ছুড়ে মারে। এতে পাঁচজন পুড়ে যান। রাতেই তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আসা সেলিম সরকারের ভাই ইউনুস সরকার ও ভাগনে আবদুল হকের অভিযোগ, এসিড ছুড়েছেন সিফাত নামের এক যুবক। সেলিমের যে মেয়ের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল, তাকে তিনি পছন্দ করেন। গত বছরের মাঝামাঝি সময় আংটিবদল অনুষ্ঠান হয়। পরে সেলিমের পরিবারকে সিফাত জানান যে ওই কনেকে তিনি পছন্দ করেন। এ সময় সেলিমের পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে (সিফাত) জানানো হয়, মেয়ে রাজি থাকলে তিনি বিয়ে করতে পারেন। কিন্তু তাদের পক্ষে কিছু করা সম্ভব নয়। এর জের ধরেই গতকাল রাতে বরকে লক্ষ্য করে সিফাত এসিড ছোড়েন।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সমির সরকারের ভাষ্য, খবর পেয়ে ওই গ্রামে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখনো থানায় অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অপরাধীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

You Might Also Like