গাজীপুরে আইনজীবী খুন, মা-ছেলে আটক

গাজীপুরে ছুরিকাঘাতে শিক্ষানবিশ আইনজীবী খন্দকার এনামুল হক বিপ্লব (৪২) খুনের ঘটনায় এক যুবক ও তার মাকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক যুবকের নাম মাহবুব হাসান রাব্বি ওরফে রাতুল (২২) এবং তার মায়ের নাম নাজমা বেগম (৪২)। তারা জেলা শহরের বরুদা এলাকায় ভাড়া থাকেন। ইতিপূর্বে তারা উত্তর ছায়াবীথি এলাকায় ভাড়া থাকতেন।

রোববার দুপুরে গাজীপুরের পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেসব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার মো. হারুন অর রশিদ এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, নাজমা বেগমের সঙ্গে নিহত অ্যাডভোকেট এনামুল হক বিপ্লবের অনৈতিক সম্পর্ক ছিল। এ কারণে নাজমা বেগমের দুছেলে রাব্বি ও রবিন মিলে তাকে খুন করে। এ ঘটনায় জয়দেবপুর থানায় মামলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার সন্ধ্যায় জেলা শহরের উত্তর ছায়াবীথি এলাকায় নিজ বাসার কাছে এনামুল হক বিপ্লবকে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা রাব্বি ও রবিন এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত ও রড দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পাঠান। সেখান থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে উত্তরা আধুনিক হাসপাতাল ও পরে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত বিপ্লব গাজীপুর আদালতের শিক্ষানবিশ আইনজীবী এবং উত্তর ছায়াবীথি এলাকার মৃত খন্দকার সামসুদ্দিনের বড় ছেলে। তার ছোট ভাই অ্যাডভোকেট খন্দকার আমিনুল হক টুটুল ঢাকার সুপ্রিম কোর্টের সাবেক সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন।

You Might Also Like