গরু দিয়ে হুমকি

নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে কূটননৈতিক সম্পর্কের টানপোড়েনের জের ধরে তুরস্কের ব্যবসায়ীরা সে দেশ থেকে গরু আমদানি না করার ঘোষণা দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, এর অংশ হিসেবে আমদানি করা কিছু গরু ফেরতও পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদলু বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এরদোয়ানের ক্ষমতা আরও বাড়াতে ১৬ এপ্রিল সংবিধান সংশোধন নিয়ে তুরস্কে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে। এই গণভোটের পক্ষে প্রচারের জন্য শনিবার নেদারল্যান্ডসের রটারডাম শহরে পুলিশ তুরস্কের দুই মন্ত্রীকে সমাবেশ করতে দেয়নি। ওই দুই মন্ত্রীর মধ্যে একজনকে কনস্যুলেটে ঢুকতে না দেওয়া এবং পরে তাকে জার্মান সীমান্ত দিয়ে বের করে দেওয়া হয়। এর জেরে দুদেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের অবনতি ঘটে। সর্বশেষ মবার নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূতকে নিষিদ্ধ করেছে আঙ্কারা। এছাড়া নেদারল্যান্ডসের ওপর অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপেরও হুশিয়ারি দিয়েছে এরদোয়ান সরকার।

তুরস্কের মাংস অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান বুলেন্ট জানিয়েছেন, নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে চলমান কূটনৈতিক বিবাদের কারণে তারা সে দেশ থেকে আমদানি করা ৪০টি গরু ফেরত পাঠিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘ডাচ হলস্টেইন প্রজাতির গরু আমদানি আমাদের দেশে খুবই সাধারণ। তবে এই গরুগুলির প্রজণন আমাদের দেশে গুরুতর সমস্যা করছে। আমাদের উচিৎ নিজেদের গরুর প্রজণন বাড়ানো।’

ভবিষ্যতে নেদারল্যান্ডস থেকে কোনো মাংসজাতীয় পণ্য তুরস্কে আমদানি করা হবে উল্লেখ করে তিনি জানান, ফেরত দেওয়া গরুগুলি নিতে অস্বীকার করলে এগুলোর স্থান হবে তুরস্কের কসাইখানায়।

You Might Also Like