খাশোগিকে হত্যার ১২ দিন আগে পরিকল্পনা করা হয়

তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি আরবের কনস্যুলেটে সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার ১২ দিন আগেই এই হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা করা হয়। তুরস্কের কর্মকর্তারা এ দাবি করেছেন।

সৌদি ঘাতকদের ফোন কল ও গতিবিধি পর্যালোচনা করে এ সিদ্ধান্তে পৌঁছায় তুরস্কের তদন্তকারী দল।

তুরস্কের কর্মকর্তারা সৌদি ঘাতক দলের নেতা মাহের মুতরেবের সৌদি আরবে করা ১৯টি ফোন কল পর্যালোচনা করেন। এর মধ্যে চারটি ফোন করা হয় সৌদ আল-কাহতানিকে। কাহতানির সঙ্গে মুতরেবের কথোপকথনের সময় তৃতীয় এক ব্যক্তির কণ্ঠস্বর শোনা যায়।

আল-কাহতানি সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ডান হাত হিসেবে পরিচিত ছিলেন। সম্প্রতি খাশোগি হত্যায় আন্তর্জাতিক চাপে তাকে সৌদি রাজ আদালতের উপদেষ্টার পদ থেকে অপসারণ করা হয়।

আল জাজিরার প্রতিনিধি সিনেম কোসেগলু তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারা থেকে সংবাদমাধ্যমটিকে বলেন, ‘যখন মুতরেব ও আল-কাহতানি মোবাইলফোনে কথা বলছিলেন তখন আল-কাহতানির ফোন থেকে তৃতীয় এক ব্যক্তির কণ্ঠস্বর শুনতে পাওয়া যায়।… মুতরেবের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য আল-কাহতানি তৃতীয় এক ব্যক্তির কাছে দিচ্ছিলেন।’

সিনেম কোসেগলু বলেন, ‘তুরস্কের কর্মকর্তাদের অনুসারে, তাদের দৃঢ় বিশ্বাস তৃতীয় ওই ব্যক্তিটি মোহাম্মদ বিন সালমান। তবে কারিগরি বিশ্লেষণের সীমাবদ্ধতার কারণে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। মুতরেব এসব কল তার সৌদি মোবাইলফোন সেট থেকে করছিলেন এবং তাই এটি বিশ্লেষণ করতে তুরস্কের সৌদির কারিগরি সমর্থন প্রয়োজন।’

তুরস্কের কর্মকর্তারা জানান, এটি খোলাসা হয়েছে যে, সৌদি কনসাল জেনারেল ছাড়াও কনস্যুলেটের আরো তিন কর্মী এই হত্যাকাণ্ডের প্রধান সন্দেহভাজন। এদের মধ্যে একজন খাশোগির তুরস্কে পৌঁছানোর ৭২ ঘণ্টা আগে রিয়াদ যান এবং তাকে হত্যার কয়েক ঘণ্টা আগে কনস্যুলেটে ফেরত আসেন।

এদিকে, খাশোগি হত্যাকাণ্ডের পর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভূমিকার সমালোচনা করেছে তুরস্ক। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু জানান, ট্রাম্পের ভূমিকা দেখে মনে হচ্ছে, তিনি খাশোগি হত্যায় তদন্তকারীদের উদঘাটন উপেক্ষা করে ‘অন্ধ থাকার চেষ্টা’ করছেন।

সৌদি আরবকে যুক্তরাষ্ট্রের ‘স্থিতিশীল মৈত্রী’ হিসেবে আখ্যায়িত করে তাদের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখার শপথ করেছেন ট্রাম্প।

এ বিষয়ে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ট্রাম্প যে বিবৃতি দিয়েছেন তার অর্থ হলো- যাই ঘটুক না কেন, খাশোগি হত্যায় আমি অন্ধই থাকব। এটি ঠিক মনোভাব না। অর্থই সবকিছু নয়।’

তথ্য : আল জাজিরা

You Might Also Like