‘খালেদাকে অবরুদ্ধ করা হয়নি, নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে’

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়নি ও তার চলাফেরায় কোনো বাধা দেওয়া হয়নি বরং নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এর আগে গুলশান কার্যালয় থেকে খালেদা জিয়া শনিবার রাতে বের হতে চাইলে তকে বাধা দেয় পুলিশ। এসময় প্রায় আধঘণ্টা গাড়িতে অপেক্ষার পর আবারও কার্যালয়ে ফিরে যান খালেদা জিয়া।

রবিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করা হয়নি। সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও সাবেক বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে শুধু তার নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। শুধু খালেদা জিয়া নয়, বিএনপির কোনো নেতাকেই অবরুদ্ধ করা হয়নি।

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে আটকের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘রিজভীকে আটক করা হয়নি। তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে সেখানে কোনো অ্যাম্বুলেন্স ছিল না। এ অবস্থা পুলিশ তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

৫ তারিখে কোনো ধরণের সংহিংসতার আশঙ্কা করা হচ্ছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কোনো কোনো রাজনৈতিক দল সহিংসতা করার পরিকল্পনা করছে। তবে সব ধরনের সহিংসতা মোকাবেলায় প্রস্তুত আছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

মনিরুল ইসলাম বলেন, আজ রবিবার বিকেল ৫টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত রাজধানী ঢাকায় সব ধরনের সভা-সমাবেশ, মিছিল ও গণ জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ডিএমপির অধ্যাদেশ বলে এ আদেশ জারি করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শনিবার রাত থেকে খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ও কার্যালয়ের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। বিএনপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, খালেদা জিয়া দলের অসুস্থ যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদকে দেখতে নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু পুলিশ তাকে গুলশানের কার্যালয় থেকে বের হতে দেয়নি।

এছাড়া রাত ১২টার দিকে নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে দলের ‘অসুস্থ’ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদকে ‘আটক’ করে অ্যাপোলো হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। সেখানে পুলিশি পাহারায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

You Might Also Like