কোরিয়া সীমান্তে সেনা মোতায়েনের খবর অস্বীকার করল চীন

উত্তর কোরিয়ার সীমান্তে সেনা মোতায়েনের খবর অস্বীকার করেছে চীন। দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম সম্প্রতি খবর দিয়েছিল, কোরিয় উপদ্বীপে সম্ভাব্য মার্কিন আক্রমণের ফলে সৃষ্ট পরিস্থিতি মোকাবিলা করার উদ্দেশ্যে নিজের পূর্ব সীমান্তে সেনা মোতায়েন করেছে চীন।

এর প্রতিক্রিয়ায় চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় নিজের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলেছে, চীনের উত্তর-পূর্ব সীমান্তে সেনা মোতায়েনের খবর ‘বিশুদ্ধ বানোয়াট’ তথ্যের ওপর ভিত্তি করে করা হয়েছে। বিবৃতিতে এ সম্পর্কে বিস্তারিত আর কিছু বলা হয়নি।

দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম রোববার খবর দিয়েছিল, সম্ভাব্য মার্কিন হামলা প্রতিহত করতে উত্তর কোরিয়া সীমান্তে ১৫০,০০০ সেনা মোতায়েন করেছে চীন।

ওয়াশিংটন এরইমধ্যে কোরিয় উপদ্বীপের পানিসীমায় মোতায়েনের জন্য একটি বিমানবাহী রণতরী পাঠিয়েছে। সেইসঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকা কোরিয় উপদ্বীপে হাজার হাজার সেনা ও ট্যাংকসহ প্রচুর সামরিক সরঞ্জাম মোতায়েন করেছে। দুই দেশ ওই উপদ্বীপে এ যাবতকালের মধ্যে সবচেয়ে বড় যৌথ মহড়া চালিয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম বলেছে, ভূমধ্যসাগর থেকে মার্কিন নৌবাহিনী সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর পর এবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পিয়ংইয়ং-এর বিরুদ্ধে একই রকম সংক্ষিপ্ত হামলার নির্দেশ দিতে পারেন। ওই গণমাধ্যম আরো দাবি করেছে, উত্তর কোরিয়া জাতিসংঘের প্রস্তাব উপেক্ষা করে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে যাওয়ার কারণে ট্রাম্প দেশটির ওপর হামলার নির্দেশ দিতে কোনো দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগবেন না।

এদিকে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে কোরিয় উপদ্বীপের সংকট শান্তিপূর্ণ উপায়ে নিরসনের জন্য ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

You Might Also Like