কুয়েটে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষ : আহত ১০

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, গুলিবর্ষণ ও ককটেল বিষ্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে হয়েছে। এ সময় প্রায় ১০ জন আহত হয়েছেন। রোববার দিবাগত রাত ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এদিকে সোমবারও ক্যাম্পাসে পরিস্থিতি থমথমে রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।

সাধারণ শিক্ষার্থীরা জানায়, ছাত্রলীগের নবঘোষিত হল কমিটি নিয়ে মতবিরোধের জেরে এ সংঘর্ষ হয়েছে।

তবে কুয়েট ছাত্রলীগ সভাপতি শাফায়েত হোসেন নয়ন জানান, তিনি ও সাধারণ সম্পাদক আলী ইমতিয়াজ সোহান রাতে ফজলুল হক হলের সামনে অবস্থান করছিলেন। এ সময় একদল বহিরাগত সন্ত্রাসী তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পরে সন্ত্রাসীরা সাধারণ শিক্ষার্থী, গার্ড ও ডাইনিং বয়সহ অন্তত ১০ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে।

তিনি আরো জানান, ডাইনিংয়ের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে বঙ্গবন্ধু হলের ডাইনিং ম্যানেজারদের গণধোলাই দিয়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এর সঙ্গে ছাত্রলীগ জড়িত না বলে দাবি করেন তিনি।

খানজাহান আলী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)আশরাফ হোসেন আজ সকালে জানান, কুয়েটের ভেতরে ছাত্রদের মধ্যে গণ্ডগোল হয়েছে বলে শুনেছি। তবে থানায় কোনো মামলা হয়নি। কাউকে আটকও করা হয়নি। এ ঘটনায় বহিরাগতরা যাতে ভেতরে প্রবেশ করতে না পারে, সে জন্য প্রধান ফটকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বিষয়টি কুয়েট কর্তৃপক্ষ দেখছেন।

You Might Also Like