কুতিনহো-রাকেটিচের গোলে ফাইনালে বার্সা

স্প্যানিশ কোপা দেল রের ফাইনালে উঠেছে বার্সেলোনা। বৃহস্পতিবার রাতে সেমিফাইনাল দ্বিতীয় লেগে ভ্যালেন্সিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়ে (দুই লেগ মিলিয়ে ৩-০) ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ভালভার্দের শিষ্যরা। বার্সার এমন জয়ে গোলের দেখা পেয়েছেন জানুয়ারিতে লিভারপুল থেকে বার্সেলোনায় যোগ দেওয়া ব্রাজিলিয়ান তারকা ফিলিপে কুতিনহো। যা বার্সার হয়ে তার প্রথম গোল। অপর গোলটি করেছেন ইভান রাকেটিচ।

অবশ্য ভ্যালেন্সিয়ার ঘরের মাঠে প্রথমার্ধে কোনো গোলের দেখা পায়নি কাতালানরা। গোলশূন্যভাবে শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা। বার্সার শুরু একাদশে অবশ্য ছিলেন না কুতিনহো। বিরতির পর আন্দ্রে গোমেজের বদলি হিসেবে মাঠে নামেন ফিলিপে কুতিনহো। মাঠের নামার ৪ মিনিটের মাথায়ই বার্সেলোনার হয়ে তার প্রথম গোলটি করেন। এ সময় লুইস সুয়ারেজ বাম দিক দিয়ে বল নিয়ে আক্রমণে ওঠেন। ডি বক্সের বামপ্রান্ত থেকে বল বাড়িয়ে দেন পেনাল্টি বক্সের মধ্যে ঢুকে পড়া ফিলিপে কুতিনহোকে। সুয়ারেজের উঁচু করে বাড়িয়ে দেওয়া বলে ডান পায়ের শটে জালে পাঠান কুতিনহো (১-০)। ২০১৩ সালে লিভারপুলের হয়ে কুতিনহোর প্রথম গোলের যোগানদাতা ছিলেন সুয়ারেজ। ৫ বছর পর বৃহস্পতিবার বার্সেলোনার হয়ে কুতিনহোর প্রথম গোলেও অ্যাসিস্ট করলেন সুয়ারেজ। এ যেন ললাটের লিখন।
৮২ মিনিটের মাথায় ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ইভান রাকেটিচ। এই গোলটিতেও অ্যাসিস্ট করেন লুইস সুয়ারেজ। বাম প্রান্তে বল দখলের লড়াইয়ে ভুল পাসে বল পেয়ে যান লুইস সুয়ারেজ। সেখান থেকে একটু সামনে এসে বল বাড়িয়ে দেন মাঝে থাকা রাকেটিচকে। রাকেটিচ যখন বল পান তখন ভ্যালেন্সিয়ার গোলরক্ষক জাউমি একা। গোলরক্ষককে একা পেয়ে জোরালো শট নেন রাকেটিচ। জাউমি ডানদিকে ঝাপিয়ে পড়েও শেষরক্ষা করতে পারেননি।

বাদবাকি সময়ে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকা বার্সাকে আর ছুঁতে পারেনি ভ্যালেন্সিয়া। পায়নি জালের নাগালও। তাতে টানা পঞ্চমবারের মতো কোপা দেল রের ফাইনালে ওঠে যায় বার্সা। যা কাতালানের ক্লাবটির রেকর্ড ৪০তম ফাইনাল।
২১ এপ্রিল ফাইনালে সেভিয়ার মুখোমুখি হবে মেসি-সুয়ারেজরা।

You Might Also Like