কিশোরগঞ্জে যাত্রীবাহী বাসে পেট্রলবোমা হামলা, দগ্ধ ১২

কিশোরগঞ্জ সদরে একটি যাত্রীবাহী বাসে দুর্বৃত্তদের পেট্রলবোমা হামলায় নারীসহ অন্তত ১২ জন দগ্ধ হয়েছেন। বুধবার রাত সোয়া ১১টার দিকে কিশোরগঞ্জ-ভৈরব সড়কের কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার চৌদ্দশত ইউনিয়নের সুলতানপুরে এ পেট্রলবোমা হামলার ঘটনা ঘটে ।

দগ্ধদের কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে আব্দুল মালেক (৩৫) ও জাহেদার (৪০) অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের শরীরের বেশিরভাগ অংশ পুড়ে গেছে।

গুরুতর দগ্ধরা হলেন আব্দুল মালেক (৩৫) নেত্রকোণা জেলার মদন থানার কদমজিরি গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে ও জাহেদা (৪০), সিলেট জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার টুকেরগড় গ্রামের আব্দুল বারিকের স্ত্রী।

দগ্ধ অন্য যাত্রীরা হলেন, দীপু রায় (২৩), মোতালেব (৩৮), পূর্ণিমা রায় (১৫), উষা রায় (১৭), বিপ্লব পাল (৩০), নিমায় রায় (৩০), বিকাশ নায়েক মোদক (২৫), প্রতাপ চন্দ্র রঞ্জন (২৬) ও মাহফুজ (৩৫)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, নেত্রকোণার কেন্দুয়া  থেকে ৩০/৩৫ জন যাত্রী নিয়ে শাহ সুলতান পরিবহন নামে একটি বাস সিলেটের ভোলাগঞ্জে যাচ্ছিল।

রাত সোয়া ১১টার দিকে কিশোরগঞ্জ সদরের সুলতানপুরে পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা বাসটিতে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করে।  এতে মুহুর্তে বাসে আগুন ধরে যায়। আগুনে দগ্ধ হয় বাসের ১২ যাত্রী। তাদের বেশিরভাগের হাত ও পা পুড়ে গেছে। আগুনে বাসটিও সম্পূর্ণ পুড়ে যায়।

কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আনোয়ার হোসেন খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শীর্ষ নিউজকে জানান, তিনি ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করা যায়নি বলে তিনি জানান। তিনি বলেন জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

You Might Also Like