‘কালি ও কলম’সম্পাদক আবুল হাসনাতের ইন্তেকাল

সাহিত্য সাময়িকী ‘কালি ও কলম’-এর সম্পাদক আবুল হাসনাত আর নেই। আজ রবিবার সকাল আটটায় রাজধানীর আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

জাতীয় কবিতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কবি তারিক সুজাত গণমাধ্যমকে জানান, আবুল হাসনাত নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত ছিলেন। শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত রাখা হবে বেঙ্গল শিল্পালয়ে, এরপর সোয়া ২টা থেকে পৌনে ৩টা পর্যন্ত ছায়ানট শিল্প প্রাঙ্গণে রাখা হবে। বাদ আসর ধানমন্ডি ৭ নম্বর রোডের মসজিদে জানাজা শেষে শহিদ বুদ্ধিজীবী গোরস্তানে দাফন করা হবে।

আবুল হাসনাত ১৯৪৫ সালের ১৭ জুলাই পুরান ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মাহমুদ আল জামান নামে কবিতা লিখতেন।

আবুল হাসনাতের কবিতার বইয়ের মধ্যে রয়েছে ‘জ্যোৎস্না ও দুর্বিপাক, ‘কোনো একদিন ভুবনডাঙায়’, ‘ভুবনডাঙার মেঘ ও নধর কালো বেড়াল’।

আবুল হাসনাত কবিতা, উপন্যাস, চিত্র-সমালোচনাসহ সাহিত্যের নানা শাখায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। তিনি বিচক্ষণ সাহিত্য সম্পাদক হিসেবে খ্যাতিমান। তিনি ২৪ বছর ধরে দৈনিক ‘সংবাদ’এর সাহিত্য সাময়িকী সম্পাদনা করেছেন। আমৃত্যু তিনি কালি ও কলমের সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি একইসঙ্গে চিত্রকলা বিষয়ক ত্রৈমাসিক ‘শিল্প ও শিল্পী’রও সম্পাদক ছিলেন।

কবিতা, উপন্যাস, চিত্র-সমালোচনাসহ সাহিত্যের নানা বিভাগে পদচ্ছাপ রেখেছেন আবুল হাসনাত। চিত্রকলা বিষয়ে আবুল হাসনাতের প্রজ্ঞা সর্বজনবিদিত। তার হাত ধরেই বহু কবি-সাহিত্যিক-শিল্পী পাঠক-দর্শকের কাছাকাছি পৌঁছোতে পেরেছেন এবং স্থান করে নিয়েছেন এদেশের সাহিত্যভুবনে। মিতভাষী আবুল হাসনাত তার ‘প্রত্যয়ী স্মৃতি ও অন্যান্য’ গ্রন্থে তার সময়কার রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক ও সাহিত্য-সংস্কৃতি অঙ্গনের নানা বাঁকবদলের ঘটনাক্রমসহ জীবনপথের নানা ঘটনা ও তথ্য বর্ণনা করেছেন।

২০১৩ সালে তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।