কাতার সংকট : পর্যায়ক্রমিক ঘটনাবলী

১. মে মাসের শেষের দিকে কাতারের সরকারি সংবাদ সংস্থার ওয়েবসাইট হ্যাক করা হয়।

২. যুক্তরাষ্ট্রে আমিরাতি রাষ্ট্রদূত ইউসেফ আল-ওতাইবার ই-মেইল হ্যাক করা হয়। পরে বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খালিদ বিন আহমেদ আল খালিফার টুইটারও হ্যাক করা হয়।

৩. বাহরাইন কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কচ্ছেদ করে।

৪. সৌদি আরব কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কচ্ছেদ করে।

৫. সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিশর প্রায় একই সঙ্গে কাতারের সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদ করে।

৬. কূটনৈতিক সংকটের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়ায় কাতার ওই চার দেশের এহেন পদক্ষেপের কোনো ‘আইনি যৌক্তিকতা’ নেই বলে দাবি করে। পাশাপাশি তারা বলে, এই পদক্ষেপ দেশটির ‘সার্বভৌমত্বের ওপর হস্তক্ষেপ’।

৭. মার্কিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন ‘উপসাগরীয় সহযোগিতা সংস্থা’ (‘গাল্ফ কো-অপারেশন কাউন্সিল’) বা জিসিসিকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে আহ্বান জানান।

৮. ইয়েমেনের আন্তজার্তিকভাবে স্বীকৃত হাদি সরকার কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে এবং দেশটিতে বিদ্রোহী হুথিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত সৌদি-নেতৃত্বাধীন জোটের জোট থেকে কাতারকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন জানায়। কারণ হিসেবে তারা ইয়েমেনের উগ্রবাদী দলগুলোর প্রতি কাতারের সমর্থনকে উল্লেখ করেন।

৯. কাতার সীমান্ত বন্ধ ঘোষণা করে সৌদি আরব।

১০. সন্ত্রাসবাদের সমর্থন করার অভিযোগে লিবিয়ার তিনটি প্রতিদ্বন্দ্বি সরকারের অন্যতম হাফতার সরকার কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে।

১১. মিশর দোহা থেকে তাদের রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়। পাশাপাশি কায়রোতে কাতারের রাষ্ট্রদূতকে দেশত্যাগের আদেশ করা হয়।

১২. উগ্রবাদকে মদদ দেওয়ার অভিযোগ জানিয়ে মালদ্বীপ কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে।

১৩. উপসাগরীয় দেশগুলোর মধ্যে সংলাপের আহ্বান জানায় ইরান।

১৪. পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলে সাম্প্রতিক কূটনৈতিক সংকট নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করে তুরস্ক।

১৫. কাতারের সঙ্গে স্থল, নৌ ও বিমান যোগাযোগ ছিন্ন করে মিশর।

১৬. আল জাজিরার স্থানীয় কার্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে সৌদি আরব।

১৭. উপসাগরীয় দেশগুলোর কাতারের সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদের পদক্ষেপকে সমর্থন জানায় ইসরায়েল।

১৮. কাতারে অবস্থিত সেনা ঘাঁটি ও তা থেকে পরিচালিত সেনা অভিযানে কোনো ধরনের পরিবর্তনের পরিকল্পনা নেই তাদের, জানায় মার্কিন সেনাবাহিনী।

১৯. কাতারি আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানিকে ধৈর্য ধারণ করতে ও হঠকারি সিদ্ধান্ত না নিতে আহ্বান করেন কুয়েতি আমির শেখ সাবাহ আল আহমেদ আল জাবের আল সাবাহ।

২০. চলমান উত্তেজনা প্রশমনে কাতারি, রুশ, কুয়েতি ও সৌদি নেতাদের সঙ্গে ফোনালাপ করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়িপ এরদোয়ান।

২১. কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক পুনঃস্থাপনের আগে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার নিশ্চয়তা দাবি করে আরব আমিরাত।

২২. কাতার আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদকে মদদ দিচ্ছে, এমন অভিযোগ করে টুইট করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরে সৌদি ও অন্যান্য দেশের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েও টুইট করেন তিনি।

২৩. মার্কিন সেনাবাহিনীকে সাহায্য করায় কাতারের প্রতি তারা কৃতজ্ঞ, জানায় পেন্টাগন।

২৪. কাতারের আমির তামিম আল থানির সঙ্গে ফোনালাপকালে কূটনৈতিক উত্তেজনা নিরসনে সাহায্য করতে আগ্রহ প্রকাশ করেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

২৫. সংকট নিরসনে কাতারকে নীতিগত পরিবর্তন আনতেই হবে, জানায় সৌদি আরব। কাতারকে মুসলিম ব্রাদারহুড ও হামাসের মত সংগঠনকে সমর্থন করা বন্ধ করতে বলেন তারা।

২৬. কাতার সংকট নিয়ে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজের সঙ্গে বৈঠক করেন কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল সাবাহ।

২৭. কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল সাবাহ উপসাগরী সংকট নিয়ে আলোচনা করতে আবু ধাবির উদ্দেশে রওনা হন।

২৮. কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক হ্রাস করে জর্দান।

২৯. কাতারের বিরুদ্ধে অবরোধের সমালোচনা করেন এরদোয়ান।

৩০. কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে মৌরিতানিয়া।

৩১. বাদশাহ সালমানের সঙ্গে করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

৩২. হামাস ও কাতারের বিরুদ্ধে সৌদি মন্তব্যে তারা ‘আহত হয়েছেন’, জানায় হামাস।

৩৩. কাতারের সংবাদ সংস্থা হ্যাকিংয়ের ঘটনায় রুশ হ্যাকারদের সংশ্লিষ্টতার দাবি মিথ্যা- রুশ সরকারের দাবি।

৩৪. আরব আমিরাত কাতারের সরকার নয়, সরকারি নীতিতে পরিবর্তন চায়, সংবাদ মাধ্যমে এমন তথ্য দেওয়া হয়।

You Might Also Like