করোনার ধাক্কায় আবারও কাহিল যুক্তরাষ্ট্র

করোনার ধাক্কায় আবারও কাহিল যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে করোনায় একেক দিন নতুন নতুন রেকর্ড করছে। প্রতিনিয়তই পুরোনো রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ছে মার্কিনীরা। জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে শুধুমাত্র গতকাল বৃহস্পতিবার একদিনেই ৬১ হাজার ৬৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। গত মঙ্গলবারও ৬০ হাজার জন শনাক্ত হয়েছেন। এর আগে গত ২ জুলাই একদিনে ৫৫ হাজার ২২০ জন শনাক্ত হয়েছিল।

ক্যার্লিফোনিয়া ও টেক্সাসের প্রতিদিন গড়ে ১০ হাজার করে নতুন শনাক্ত হচ্ছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মঙ্গলবার বলেছেন, মহামারীর জন্য আমেরিকা একটি ভালো স্থান। তবে, ডা. ফাউসি বলেছেন, দেশটি প্রথম করোনা ভাইরাস তরঙ্গে হাঁটু সমান গেঁড়ে ছিল।

করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ দেশ যুক্তরাষ্ট্র। অন্য যে কোনো দেশ থেকে আমেরিকায় শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেশি। বৃহস্পতিবার বিকেলে এ রিপোর্টে লেখা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৩২ লাখ ১৯ হাজার ৯৯৯ জন কোভিড নাইনটিনে আক্রান্ত হয়েছেন।

মারা গেছেন এক লাখ ৩৫ হাজার ৮২২ জন। বৃহস্পতিবার একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ৬১ হাজার মানুষ। টেক্সাসে বৃহস্পতিবার একদিনে রেকর্ড সংখ্যক ১০২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে মৃত্যু হয়েছে এক হাজারের কাছাকাছি।

এর মধ্যদিয়ে বিশ্বে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশটি ৩০ লাখ আক্রান্তের সর্বোচ্চ মাইলফলক বুধবার অতিক্রম করলো। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রতিদিনের আক্রান্তের এ সংখ্যাকে তেমন গুরুত্ব দিচ্ছেন না। এক্ষেত্রে তার ভাষ্য হচ্ছে, পরীক্ষার সক্ষমতা বাড়ানোই এ সংখ্যা বৃদ্ধির প্রধান কারণ।

বর্তমানে টেক্সাস, ফ্লোরিডা, লুইজিয়ানা ও অ্যারিজোনাসহ যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন উৎপত্তি কেন্দ্রে করোনাভাইরাসের নতুন বিস্তার লক্ষ্য করা গেলেও এ ভাইরাসের আগের উৎপত্তি কেন্দ্র নিউইয়র্ক ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলে কোভিড-১৯ ভাইরাস প্রায় নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। দেশটি এ ভাইরাসের দ্রুত বিস্তার রোধে লড়াই করছে।

এদিকে কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আবার অনেক বেড়ে যাওয়ায় এসব অঞ্চলের রাজ্যগুলোতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুনরায় খুলে দেয়ার প্রক্রিয়া থেমে গেছে। তারা ফের বিভিন্ন বার বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে। এদিকে বুধবার সকালে ট্রাম্প দেশব্যাপী বিভিন্ন স্কুল ফের খুলে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে ভ্যাকসিন তৈরির পদক্ষেপ জোরদার

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনষ্টিটিউট অব অ্যালার্জি এন্ড ইকফেকশাস ডিজিজ (এনআইএসআইডি) নতুন ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছে। করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু দ’ুটোই বাড়তে থাকার প্রেক্ষাপটে মনক্লোনাল এন্টিবডি পরীক্ষা ও ভ্যাকসিন তৈরির পদক্ষেপ জোরদারের লক্ষ্যে বুধবার তারা এ নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেয়।

কোভিড-১৯ প্রিভেনশান ট্রায়ালস নেটওয়ার্ক নামের নতুন এ নেটওয়ার্কের আওতায় ব্যাপক পরিসরে ক্লিনিক্যাল ও এন্টিবডি পরীক্ষার জন্যে হাজার হাজার স্বেচ্ছাসেবককে অন্তর্ভূক্ত করা হবে।

এনআইএসআইডি’র পরিচালক এন্থনি ফাউচি বলেছেন, করোনা মোকাবেলায় নিরাপদ ও কার্যকর চিকিৎসা পদক্ষেপ কেবল জীবন রক্ষায় আমাদের সামর্থ্য বাড়াবে না বরং বৈশ্বিক মহামারি অবসানেও সহায়ক হবে।

এনআইএসআইডি আরো বলছে, যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বের একশরও বেশি জায়গায় এই নেটওয়ার্ক তার কার্যক্রম চালাবে। ফাউচি বলেন, মার্কিন সরকার এই গ্রীস্মে দেশজুড়ে পরীক্ষাধীন তিনটি করোনা ভ্যাকসিনে অর্থায়ন ও গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা চালাবে।

তিনি আরো বলেন, আগে যেভাবে ভ্যাকসিন পরীক্ষার সময়সীমার কথা বলা হয়েছিল তা সেভাবেই চলছে। এর ফলে চলতি বছরের শেষে কিংবা আগামী বছরের প্রথম দিকে ভ্যাকসিন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে হাজার হাজার লোককে অন্তর্ভূক্ত করতে হয়। এই তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষার ধাপ মর্ডানা শুরু করছে এই জুলাইয়ে। অক্সফোর্ড/আস্ট্রাজেনকা শুরু করছে আগস্টে এবং জনসন এন্ড জনসন শুরু করছে সেপ্টেম্বরে।

 

 

রিজেন্ট হাসপাতালের লাইসেন্স নেই জেনেও চুক্তি করেছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

 

‘হোটেলে একরাত কাটালে অভিনয়ের সুযোগ দেবেন’

 

বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণ দুর্নীতি ও অনিয়ম

 

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন আর নেই

 

বাংলাদেশে করোনায় মারা যাওয়া ৭৯ ভাগ পুরুষ

 

যার মাধ্যমে টিভি মিডিয়ায় প্রভাব বিস্তার করেছিলেন সাহেদ

 

প্রকাশ পাচ্ছে সাহেদের নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য

 

এভাবেই পেটাত ও নারী দিয়ে হেনস্তা করত সাহেদ

 

সাহেদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

 

সাহেদের ব্যাংক হিসাব জব্দ

 

রিজেন্টের সাহেদের প্রধান সহযোগী গ্রেপ্তার

 

রিজেন্ট হাসপাতালের দুর্নীতি তদন্তে দুদক

 

সাহেদের স্ত্রীও এখন বিচার চান

You Might Also Like