করাচী বিমান বন্দরে আবারো জঙ্গি হামলা

পাকিস্তানের করাচী জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে নিরাপত্তা বাহিনীর অ্যাকাডেমি লক্ষ্য করে আবারো হামলা চালানো হয়েছে। মঙ্গলবার হামলা চালানো হলে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে তুমুল বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়।

গত রবিবার রাতে জঙ্গি হামলায় রক্তাক্ত হয়েছিল ওই বিমানবন্দর। ওইদিন বিমানে অগ্নিসংযোগ এবং যাত্রীসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জিম্মি করে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ চালানো হয়। এতে ১০ হামলাকারীসহ ৩৬ জন নিহত হয়।

বিমানবন্দরের ফেডারেল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বাহিনীর বরাত দিয়ে বলেন, ‘এএসএফ একাডেমিকে লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে। এ সময় গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে। তবে কারা হামলা চালিয়েছে তা জানা যায়নি।’

পাকিস্তানের একটি টেলিভিশনের বরাত দিয়ে রয়টার্সে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বাহিনী তিনজন জঙ্গিকে ঘিরে রেখেছেন।

বিমানবন্দরের এক কর্মকর্তা জানায়, সব ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

গত রবিবার দিবাগত রাতে পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় শহর করাচীর ব্যস্ততম জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে হামলা হয়। রাতভর সংঘর্ষের পর সোমবার সকালে নিরাপত্তা বাহিনী বিমানবন্দরটি হামলাকারীমুক্ত ঘোষণা করে।

এ হামলার দায় স্বীকার করে পাকিস্তানি তালেবান বলেছে, তাদের ওপর পাকিস্তানি ও মার্কিন বিমান হামলার প্রতিশোধ নিতেই তারা হামলা চালিয়েছে। একই সঙ্গে এর চেয়ে ভয়াবহ হামলার জন্য প্রস্তুত থাকতে সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি দিয়েছে তারা।

You Might Also Like