ওয়াটসন-প্লেসিসের অপরাজিত জুটিতে চেন্নাইয়ের জয়

হ্যাটট্রিক পরাজয়ের পর যেভাবে ঘুরে দাঁড়াল মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস, তাতে রীতিমতো অভিভূত দলটির সমর্থকরা।

দুই ওপেনার শেন ওয়াটসন আর ফাফ ডু প্লেসিসের হার না মানা জুটিতে সহজেই কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে হারাল চেন্নাই।

পাঞ্জাবের বোলারদের পাড়ার ছেলেদের মতো পিটিয়ে তাদের লজ্জায় ডুবিয়েছে অসি-প্রোটিয়া জুটি।

কটরেল, মোহাম্মদ সামি, হারপ্রিতদের কেউই কোনো উইকেটের দেখা পাননি।

পাঞ্জাবের ছুড়ে দেয়া ১৭৯ রান তাড়া করতে নেমে কোনো উইকেট না হারিয়েই ১৪ বল হাতে রেখে জিতেছে ধোনির চেন্নাই।

রোববার দুবাই স্টেডিয়ামে চেন্নাইয়ের এমনই মারদাঙ্গা পারফরম্যান্স দেখলেন আইপিএলপ্রেমীরা।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ সূচনা করে পাঞ্জাব। অধিনায়ক লোকেশ রাহুল আর মায়াঙ্ক আগারওয়াল ৪৮ বলের উদ্বোধনী জুটিতে তুলেন ৬১ রান।

নবম ওভারে পীযুষ চাওলা এ জুটি ভাঙেন। চাওলার বলে আউট হওয়ার আগে মায়াঙ্ক আগারওয়াল ১৯ বলে ২৬ রানের ইনিংস খেলেন। এর পর মানদ্বীপ সিং এসে ১৬ বলে ২ ছক্কায় ২৭ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। রবীন্দ্র জাদেজার বলে রাইডুর ক্যাচে পরিণত হন।

এদিকে একপ্রান্ত ধরে খেলতে থাকেন অধিনায়ক রাহুল। ৪৬ বলে ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন। রাহুলকে সঙ্গ দেয় নিকোলাস পুরানও চমৎকার ইনিংস খেলেন। এ জুটি ৩২ বলে ৫৮ রান যোগ করেন।

পুরান ৩৩ রানে শার্দুল ঠাকুরের বলে আউট হওয়ার পরের বলেই কট বিহাইন্ড হন রাহুল। রাহুল করে ৫২ বলে ৬৩ রান, যেখানে ৭টি চার আর ১ ছক্কার মার ছিল।

শেষ ১৮ বলে মাত্র ২৬ রান তুলে পাঞ্জাব। যে কারণে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৭৮ রান জমা করতে পারে পাঞ্জাব।

১৭৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অনবদ্য ব্যাটিং করেন চেন্নাইয়ের জয়ের রূপকার দুই ওপেনার শেন ওয়াটসন আর ফাফ ডু প্লেসিস।

আর কোনো ব্যাটসম্যানকে নামতে দেননি তারা। সমান ৫৩ বল খেলে ডু প্লেসিস ১১ বাউন্ডারি আর ১ ছক্কায় করেন ৮৭ রান। বাউন্ডারি ১১টি, ৩ ছক্কায় ৮৩ রান করেন ওয়াটসন। ১৪ বল বাকি থাকতেই এ জুটি ১৮১ রান করেন।

১০ উইকেটে জয় পায় চেন্নাই।

You Might Also Like