এসিড দগ্ধ রেশমা মাতাবেন নিউইয়র্ক মডেলিং স্টেজ

এসিড মেরে তার মুখ ঝলসে দেওয়া হলো। শরীরে আঘাতও করা হলো। এতে মুখ বিকৃত হয়ে গেল। অন্ধ হয়ে গেল একটি চোখও।

একজন নারীর জীবনে এমন অভিশাপ নেমে এলে তার জীবন থেমে যাওয়ার কথা। কিন্তু থামেননি মুম্বাইয়ের রেশমা কোরেশি। বরং আরও বেশি উদ্যমে নিজেকে এগিয়ে নেওয়ার পণ করলেন।

সেই পণে এবার যেন নিজেকে প্রমাণ করতে চলেছেন রেশমা। সপ্তাহ দুই পর বিশ্বের সবচেয়ে অভিজাত শহর নিউইয়র্কের ফ্যাশন উইকে ৠাম্প মডেলিংয়ের স্টেজে নামবেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, ৮ সেপ্টেম্বর নিউইর্য়ক ফ্যাশন উইকে ওই ৠাম্প মডেলিং হবে। বিদেশের মাটিতে এটি হবে তার প্রথমবারের মতো ৠাম্প ওয়াকিং।

জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৯ মে পরীক্ষা দিতে যাওয়ার পথে রেশমার ভগ্নিপতি ও তার বন্ধুরা এসিড মেরে মুখ ঝলসে দেয় তার। এতে রেশমার মুখ বিকৃত হয়ে যায়, এমনকি বাঁ চোখ অন্ধও হয়ে যায়।

কিন্তু তাতে ভেঙে পড়েননি ১৯ বছর বয়সী রেশমা। নিজের জন্য জীবন গড়ার সংগ্রামে নেমে পড়েন।

ভারতে প্রকাশ্যে এসিড বিক্রির বিরুদ্ধে প্রচারণায় নেমে পড়েন তিনি। এজন্য নিজের ঝলসানো মুখের ছবি দিয়ে মুম্বাইয়ের রাস্তায় রাস্তায় বিলবোর্ড টানিয়ে দেন। ইউটিউবে ভিডিওর মাধ্যমে ছড়িয়ে দেন রূপচর্চার বিভিন্ন কৌশল।

আর তাতেই ‘মুখে আলোর রেখা’ ছড়িয়ে পড়ে রেশমার। বিশ্বের বড় বড় ফ্যাশন শো’র আয়োজক ‘এফটিএল মোডা’ নিউইর্য়ক ফ্যাশন উইকে অংশ নেওয়ার জন্য তাকে আমন্ত্রণ জানায়। যেখানে সমাগম হবে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের নামিদামি মডেল, ফ্যাশন এডিটর, ক্রেতা ও ডিজাইনারদের।

লন্ডনভিত্তিক চ্যারিটি প্রতিষ্ঠান এসিড সারভাইভারস ট্রাস্ট ইন্টারন্যাশনালের এক জরিপে দেখা যায়, ভারতজুড়ে প্রতিবছর ৫শ’ থেকে এক হাজার নারী এডিস হামলার স্বীকার হন।

You Might Also Like