উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ভারতে ধর্মের নামে ভেদাভেদ করা হচ্ছে : অমর্ত্য সেন

উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ভারতে ধর্মের নামে ভেদাভেদ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। দেশ জুড়ে অসহিষ্ণুতা ইস্যুতে নাম না করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে তোপ দেগে অমর্ত্য সেনের আক্ষেপ ধর্মনিরপেক্ষতা শব্দটাই ‘খারাপ শব্দে’ পরিণত হচ্ছে।

শনিবার নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ১১৯তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে কলকাতার নেতাজি ভবনে এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে নাম উল্লেখ না করে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন এই অর্থনীতিবিদ।

তিনি বলেন, ‘হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠরা মুসলিম, শিখ কিংবা খ্রিস্টান ধর্মালম্বীদের সহ্য করতে পারে না, এটা আমার বিশ্বাস হয় না। এটা সরকারের রাজনৈতিক কৌশল বলেই আমার মনে হয়। আমরা যদি এই প্রবণতা রুখতে চাই তবে নেতাজির আদর্শকেই মাথায় রাখতে হবে’।

অমর্ত্য সেনের আক্ষেপ ধর্ম নিরপেক্ষতা এখন ‘খারাপ শব্দ’। এই মুহূর্তে দেশে ভেদাভেদের যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তা প্রায়ই ধর্মের হানাহানিতে রূপান্তরিত হচ্ছে, পরিস্থিতি এমনই যে ধর্মনিরপেক্ষতা শব্দটাই খারাপ শব্দে পরিণত হচ্ছে। আমি সেই দিনের অপেক্ষায় আছি যেদিন গণতন্ত্র বা স্বাধীনতা শব্দগুলোও একদিন ‘খারাপ শব্দ’ হয়ে যাবে।

কেন্দ্রীর সরকারের সমালোচনা করার পাশাপাশি বর্তমান সময়ে নেতাজির আদর্শকেই যে অনুসরণ করতে হবে সেকথাও এদিন মনে করিয়ে দেন এই অর্থনীতিবিদ। তিনি বলেন ‘আমি মনে করি না স্বাধীন ভারতের সরকার নেতাজির আদর্শকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ কিছু করেছে। বর্তমান সরকার তো এই বিষয়ে সব থেকে কম করেছে। আমার মনে হয় এই সময় নেতাজির আদর্শকে অনুসরণ করাই ভীষণভাবে প্রয়োজন’।

সম্প্রতি দাদরিকা- থেকে শিবসেনার হুমকিতে গুলাম আলির কনসার্ট বাতিলসহ একাধিক ঘটনায় অসষ্ণিুতার ছবি উঠে এসেছে। সমালাচেনার জড় উঠেছে দেশ জুড়ে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে সহিষ্ণুতা নিয়ে বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদের এই বার্তা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

You Might Also Like