হোম » উত্তর আমেরিকা নজরুল সম্মেলন ২০১৮’ ওয়াশিংটনে ১১, ১২ আগষ্ট

উত্তর আমেরিকা নজরুল সম্মেলন ২০১৮’ ওয়াশিংটনে ১১, ১২ আগষ্ট

admin- Thursday, January 25th, 2018

এ্যন্থনী পিউস গমেজ, ভার্জিনিয়া থেকে : ধ্রুপদ এবং বাই’র যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এক প্রস্তুতি সভায় ‘উত্তর আমরিকা নজরুল সম্মেলন-২০১৮’ আগামী ১১ এবং ১২ আগষ্ট উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ভার্জিনিয়ার আর্লিংটনস্থ কেনমোড় মিডল স্কুল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে এই `১৭তম উত্তর আমেরিকা নজরুল সম্মেলন’।
গত ২১ জানুয়ারী ভার্জিনিয়ার স্প্রিং ফিল্ডস্থ হলিডে ইন একপ্রেস হোটেলের বলরুমে প্রস্তুতি কমিটির সভাপতি ডঃ সুলতান আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের উত্তরসুরী, কবির পৌত্রি অনিন্দিতা কাজী এবং তার স্বামী শাহীন তরফদার।
এ ছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় অনেক গণ্যমান্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, সংগঠক, সাংস্কৃতিক কর্মী, শিল্পী এবং সংস্কৃতিপ্রেমীরা। ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার সবাইকে নজরুল সম্মেলনের বিশাল আয়োজনে সম্পৃক্ত করার উদ্দেশ্যেই ছিল মূলত: এই আয়োজন। আয়োজনের সার্বিক সমন্বয়ে ছিলেন ধ্রুপদের কর্ণধার মিঃ হিরণ চৌধুরী এবং বাই-এর সভাপতি শফি দেলোয়ার কাজল।
অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে নজরুল সম্মেলনের পরিকল্পনার উপর আলোচনা, দ্বিতীয় পর্বে ছিল সংক্ষিপ্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান । দিপু খানের উপস্থাপনায় প্রথম পর্বে বক্তব্য রাখেন ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রধান মিডিয়া ব্যক্তিত্ব রোকেয়া হায়দার, উত্তর আমেরিকা নজরুল সম্মেলন কমিটির সভাপতি ডঃ সুলতান আহমেদ, ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের
অবসরপ্রাপ্ত মাসুমা খাতুন, বাংলা বিভাগের বর্তমান সংবাদ বিশ্লেষক এবং ব্রডকাস্টার জনাব আনিস আহমেদ, বাই-এর সভাপতি জনাব শফি দেলোয়ার কাজল, কবি পৌত্রি অনিন্দিতা কাজী এবং শাহীন তরফদার প্রমুখ।
প্রভাতী দাসের উপস্থাপনায় দ্বিতীয় পর্ব ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সংক্ষিপ্ত পরিসরে অনুপম সাংস্কৃতিক আয়োজন জুড়ে ছিল নজরুল ইসলামের কবিতা, গান, গানের সাথে নৃত্য পরিবেশনা এবং সব শেষে নজরুল ইসলামের গানের ছায়ায় সুরের লহরী পরিবেশিত হয় যন্ত্র সঙ্গীতে- সরোদ আর তবলার যুগলবন্দীতে। সাংস্কৃতিক পর্বে প্রথমেই নৃত্য পরিবেশন করেন ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার সবার প্রিয় নৃত্য শিল্পী, কোরিওগ্রাফার রোকেয়া হাসি। তিনি নজরুল গীতি “অঞ্জলী লহ মোর সঙ্গীতে” গানটির সাথে অত্যন্ত চমৎকার নৃত্য পরিবেশন করে সবাইকে মোহিত করেন। এছাড়া যারা জনপ্রিয় নজরুল সঙ্গীত পরিবেশন করে সবাইকে মুগ্ধ করেছেন, তারা হলেন- দিনার মনি, তাপস গোমেজ এবং অনিলা চৌধুরী।
দরাজ কন্ঠে নজরুলের কালজয়ী “বিদ্রোহী” কবিতাটি অত্যন্ত চমৎকারভাবে আবৃত্তি করে সবাইকে মুগ্ধ করেন বাংলাদেশ দূতাবাসের ডেপুটি চীফ অব মিশন, জনাব মাহবুব হাসান সালেহ। এছাড়া চমৎকার আবৃত্তির আবহে সবাইকে আচ্ছন্ন করেছিলেন মিসেস সিলিকা কণা। আর সবার শেষে সরোদ এবং তবলার যুগলবন্দীতে নজরুল সঙ্গীতের ছায়ায় অসাধারণ পরিবেশনায় সবাইকে বিমুগ্ধ করে দেন শ্রীমান সৌম্য চক্রবর্তী এবং জনাব মোনির হোসেন। সরোদ পরিবেশনায় ছিলেন অত্যন্ত গুনী শিল্পী, সরোদবাদক শ্রীমান সৌম্য চক্রবর্তী এবং তবলায় ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন তবলাবাদক, জনাব মনির হোসেন। তাদের পরিবেশনায় মুহূর্মুহূ করতালিতে ঝরে পড়ছিল দর্শক-শ্রোতাদের অভিনন্দন ও ভালবাসা।
উল্লেখ্য, সাংস্কৃতিক পর্বে তবলায় সংগত করেছেন মিঃ পল ফেবিয়ান গোমেজ এবং শব্দ নিয়ন্ত্রণে ছিলেন ওয়াশিংটনের স্বনামধন্য সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার জনাব জামিল খান। অবশেষে সবাইকে নৈশভোজ দিয়ে অনুষ্ঠানটির সমাপ্তি টানা হয়। সবারই প্রত্যাশা- ধ্রুপদ এবং বাই (বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইঙ্ক) আয়োজিত এবারের “নজরুল সম্মেলন-২০১৮” আয়োজনের নান্দনিকতায় এবং পরিবেশনার সৌকর্য্যে হবে অন্যন্য এবং সাফল্যমন্ডিত।