ঈদের ছুটিতে চার দিনে সড়কে প্রাণ হরালো ৫৪

এবারও সড়ক দুর্ঘটনার কারণে পরিবারের সঙ্গে ঈদ করা হল না ৫৪ জনের। স্বজন হারানোর শোকার্ত এই পরিবারগুলোতে বয়ে যাচ্ছে শুধুই না পাওয়ার যন্ত্রণা। অন্যদিকে অনেকেরই ঈদ কেটেছে হাসপাতালে। কেউ কেউ ব্যস্ত আহতদের নিয়ে। গত তিন দিনে সড়কে প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৪ জনে।

মঙ্গলবার (৪ জুন) থেকে শুরু করে শুক্রবার ৭ জুন পর্যন্ত ১৯ জেলায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

বগুড়া: বুধবার (৫ জুন) রাত থেকে শুক্রবার পর্যন্ত বগুড়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচজন নিহত ও ২২ জন আহত হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নন্দীগ্রাম উপজেলার কুন্দারহাটে পিকআপ চাপায় কাশেম আলী (৪২) নামে এক ভ্যানচালক নিহত ও ছয়জন আহত হয়। একই দিন রাত সাড়ে ১১টায় বগুড়ার গাবতলীতে মোটরসাইকেলের সঙ্গে সিএনজিচালিত অটো রিকশার সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহী স্মৃতি আকতার (২৬) নিহত ও চালক সাকিব হাসান বাঁধন আহত হন। গত বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে শেরপুর উপজেলার দশমাইল এলাকায় দুই বাসের সংঘর্ষে শহীদুল ইসলাম (৪০) নামে এক চালক নিহত ও ১৫ জন আহত হয়। একই দিন সন্ধ্যায় বগুড়া শহরতলীর ঠেঙ্গামারা এলাকায় মাইক্রোবাসের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে আইনুর ইসলাম (২০) নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন। এদিকে গতকাল শুক্রবার সকাল ১১টায় বগুড়া সদর উপজেলার ছোট টেংরা এলাকায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় হামিদা বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন।

এদিকে ঈদের দিন বুধবার হাটিকুমরুল-বগুড়া মহাসড়কের ভুঁইয়াগাঁতী, তবারিপাড়া ও ষোলোমাইল এলাকায় পৃথক তিনটি সড়ক দুর্ঘটনায় ট্রাকচালক, হেলপারসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এসব ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ১৫ জন।

নিহতদের মধ্যে দুজনের পরিচয় মিলেছে। তারা হলেন নেত্রকোনার ফারুক (৪০) ও চন্দন (৩৮)।

রায়গঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার (এসও) সেরাজুল ইসলাম বলেন, বুধবার (৫ জুন) দুপুরে ভুঁইয়াগাঁতী পল্লীবিদ্যুৎ এলাকায় একটি মিনি ট্রাকের সঙ্গে একটি ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এতে মিনি ট্রাকের চালক ফারুক ও হেলপার চন্দন আহত হন। পরে রায়গঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁদের মৃত্যু হয়। একই দিন সকালে তবারিপাড়া এলাকায় ঢাকাগামী ডিপজল পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে বিপরীতমুখী একটি ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এতে বাসের হেলপারসহ সাতজন আহত হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাসের হেলপারের মৃত্যু হয়। এ দুর্ঘটনার আধঘণ্টা পর ষোলোমাইল এলাকায় ঢাকাগামী আদর পরিবহনের একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে গিয়ে ৯ যাত্রী আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার ৬ জুন সকালে হাটিকুমরুল-বনপাড়া মহাসড়কের সলঙ্গায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেট কার খাদে পড়ে। এতে চালকসহ এক ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন অগ্রণী ব্যাংকের রাজধানীর একটি শাখার ব্যবস্থাপক এমারত হোসেন (৫৩) এবং প্রাইভেট কার চালক রুবেল (৩০)।

সিরাজগঞ্জ: মঙ্গলবার (৪ জুন) ভোরে নগরবাড়ী-বগুড়া মহাসড়কের রায়গঞ্জ উপজেলার শিমলা এলাকায় যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে চারজন নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ২০ জন। নিহতরা হলেন গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানার তালব সদানন্দ এলাকার এলাহী বক্সের ছেলে সাহাজাহান মিয়া (৩৫), একই থানার জয়নাল আবেদিনের ছেলে ফজলুল হক (৩৭), কুরিপাড়া এলাকার বুলু মিয়ার ছেলে হাফিজুল ইসলাম ও রংপুর জেলার ইমাতপুর মাজুরিপাড়ার আব্দুল রহিমের ছেলে আতাউল রহমান (৩২)।

ফরিদপুর: ঈদের সকালে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফরিদপুরের ধুলদী রেলগেট এলাকায় চুয়াডাঙ্গাগামী এ কে ট্রাভেলসের একটি বাস সড়কের গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে প্রাণ হারিয়েছেন পাঁচজন। আহত হয়েছে আরো ২২ জন। নিহতরা হলেন ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার কোনাগ্রামের শাহাবুদ্দীন মৃধা (৩৫), বোয়ালমারী উপজেলার ফেলানগর গ্রামের নয়ন শেখ (২২), মধুখালী উপজেলার মাঝকান্দি গ্রামের সুরমান মোল্লা (৩২), মাগুরার শালিকা উপজেলার পাঁচকাহুনিয়া গ্রামের মালেক মাঝি (৪৮) ও সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার লাঙ্গলঝরা গ্রামের শাহরিয়ার আসাদ।

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ স্টেশন কর্মকর্তা মো. নূরুল আলম দুলাল বলেন, ঢাকা থেকে এ কে ট্রাভেলসের ওই বাসটি খুলনা যাচ্ছিল। বাসটি ফরিদপুরের ধুলদী এলাকায় ধুলদী রেলগেট পার হওয়ার সময় চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

লালমনিরহাট: ঈদের দিন সকালে লালমনিরহাটের বড়বাড়িবাজারের স্মৃতিসৌধের প্রাচীরে কুড়িগ্রামগামী একটি লেগুনা ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে চালকসহ দুজন নিহত হন। পরে আহত ১০ জনের মধ্যে আরো দুজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। নিহতরা হলেন কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার নিলুরখামার গ্রামের হাফিজুর রহমান (২৫), রংপুরের তাজহাটের লেগুনা চালক আশরাফুল আলম (২৮), কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার সিতাইঝাড় গ্রামের আব্দুল আজিজ (৬০) ও ফারুক হোসেন (২৬)।

এদিকে বৃহস্পতিবার (৬ জুন) দুপুরে লালমনিরহাট সদর উপজেলার চর শিবেরকুটি এলাকায় ট্রাক্টর দুর্ঘটনায় চালক শাহানুর রহমান (৩২) নিহত হয়েছেন। তিনি ওই এলাকার লেবুমিয়ার ছেলে।

টেকনাফ (কক্সবাজার): শুক্রবার ৭ জুন দুপুরে টেকনাফ মেরিন ড্রাইভে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন তিন রোহিঙ্গা। নিহতরা হলেন উখিয়া বালুখালীর জি ব্লকের মোহাম্মদ জুবাইর (১৭), একই শিবিরের সি-ব্লকের মোহাম্মদ ইদ্রিস (৩০) ও নূর মোহাম্মদ (৪০)। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ১৫ রোহিঙ্গা। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

চকরিয়া (কক্সবাজার): শুক্রবার ৭ জুন সকালে চকরিয়ার মেদাকচ্ছপিয়া পাহাড়ি ঢালায় যাত্রীবাহী ইউনিক পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে একটি মাইক্রোবাসের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে দুজন নিহত ও পাঁচজন আহত হয়েছে। নিহত ব্যক্তিরা হলেন মাইক্রোবাস যাত্রী রওশন আরা বেগম (৪৫)। তিনি চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের উত্তর ফুলছড়ি গ্রামের খলিলুর রহমানের স্ত্রী। নিহত অন্য ব্যক্তির নাম সনেট পাল (২৭)। তিনি কক্সবাজারের রামু উপজেলার চা-বাগানের রমণী পাহাড়ের দীপক পালের ছেলে।

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জে পৃথক দুই সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ জুন) মুকসুদপুরে মাইক্রোবাস চাপায় মানিক শেখ নামে এক মাদরাসা শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। এদিকে ওই দিন রাতে কাশিয়ানি উপজেলায় মাইক্রোবাস চাপায় অজ্ঞাতপরিচয়ের এক নারী নিহত হয়েছে।

খুলনা: ঈদের দিন ডুমুরিয়ায় জেলা পরিষদ ডাকবাংলোর সামনে ইজিবাইকের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে মোটরসাইকেলচালক রাকিব গাজী (১৭) নিহত হয়েছে। সে চেচুড়ি কারিগরি বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

টাঙ্গাইল: ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের কালিহাতী উপজেলার সল্লায় বুধবার দুপুরে বাস ও পিকআপের সংঘর্ষে দুজন নিহত ও সাতজন আহত হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ওসি মোশারফ হোসেন জানান, টাঙ্গাইল থেকে কয়েকজন যুবক একটি পিকআপ ভ্যান নিয়ে বঙ্গবন্ধু সেতুর দিকে যাচ্ছিল। সল্লা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পিকআপ ভ্যানটি একটি মোটরসাইকেলকে ওভারটেক করতে গেলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বাসের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। নিহতদের মধ্যে একজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তিনি হলেন বাসাইল উপজেলা জীবনেশ্বর গ্রামের সজিব মিয়া (১৪)।

কেন্দুয়া (নেত্রকোনা): মঙ্গলবার (৪ জুন) সকালে কেন্দুয়ায় যাত্রীবাহী বাসের চাপায় মিলু মিয়া (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত মিলু পাশের মদন উপজেলার চানগাঁও গ্রামের দুলব আলীর ছেলে। এ ঘটনায় বাসটি জব্দ করেছে পুলিশ।

পূর্বধলা (নেত্রকোনা): শুক্রবার ৭ জুন দুপুরে পূর্বধলা উপজেলার খলিশাপুর বনপাড়া এলাকায় ইজিবাইক ও বাসের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ইজিবাইকচালক মিলন মিয়া (২২) নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে আরো চারজন। মিলন দুর্গাপুর উপজেলার কাকৈরগড়া গ্রামের রুমালির ছেলে।

সাভার (ঢাকা): ঈদের দিন সকালে ঢাকার আশুলিয়ায় পুলিশবাহী ইজিবাইকের সঙ্গে লিচু বোঝাই ট্রাকের সংঘর্ষে নাদিম হোসেন (২৪) নামে শিল্প পুলিশের এক কনস্টেবল নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে পুলিশের আরো তিন সদস্যসহ চারজন। আহতরা হলেন শিল্প পুলিশের নায়েক জাকারিয়া, কনস্টেবল কাউছার, কনস্টেবল আনিছুজ্জামান ও অটোরিকশা চালক।

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ): ঈদের দিন বিকেলে গফরগাঁওয়ে পিকআপ ও মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে নবী হোসেন (৪০) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। এ সময় স্থানীয় লোকজন পিকআপচালককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

মাগুরা: গতকাল শুক্রবার মাগুরা সদর উপজেলার পাকাকাঞ্চনপুর গ্রামে মোটরসাইকেল ও নসিমনের সংঘর্ষে সোহাগ মোল্যা (২৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন।

ধামরাই (ঢাকা): ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ে গত চার দিনে তিনজন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ঈদের দিন বিকেলে বাথুলিতে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে একটি প্রাইভেট কারের সংঘর্ষে প্রাইভেট কার চালক বান্দু মোল্লা নিহত হন। এর আগে মঙ্গলবার রাতে ধামরাই থানা বাসস্ট্যান্ডে মোটরসাইকেল চাপায় আবদুল মোতালেব নামের এক ব্যক্তি নিহত হন। এ ছাড়া বৃহস্পতিবার বিকেলে ডাউটিয়া এলাকায় মোটরসাইকেল চাপায় আশরাফ আলী নামের এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন।

দিরাই-শাল্লা (সুনামগঞ্জ): গত বুধবার বিকেলে সুনামগঞ্জের দিরাই-মদনপুর সড়কে বাস চাপায় নাসিম চৌধুরী রাসেদ (২০) নামে এক কলেজছাত্র মারা গেছেন। এতে আহত হয়েছেন তাঁর মামাতো ভাই মুজাহারুল ইসলামের ছেলে মাসুদ (২২)।

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ): মঙ্গলবার ৪ জুন সকালে রূপগঞ্জে বাস ও লেগুনার সংঘর্ষে নারীসহ চারজন মারা গেছেন। আহত হয়েছে ১৩ জন। নিহতরা হলেন কিশোরগঞ্জের ভৈরব থানার রিনা খাতুন (৩৯) ও পিরোজপুর এলাকার আছমা বেগম। বাকি দুজনের পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি।

নাজিরপুর (পিরোজপুর): শুক্রবার (৭ জুন) দুপুরে নাজিরপুরে সেবা গ্রীন লাইন পরিবহনের বাসের চাপায় ইসরাত জাহান নামে দেড় বছর বয়সের এক শিশু নিহত হয়েছে। নিহত শিশু ইসরাত জাহান নাজিরপুর উপজেলার চালিতাবাড়ী গ্রামের ইস্রাফিল শেখের মেয়ে।

নাটোর: মঙ্গলবার (৪ জুন) দুপুরে নাটোরে বাসের ধাক্কায় নাসির উদ্দিন নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন মোটরসাইকেলের অন্য আরোহী আবুল কালাম আজাদ। নিহত নাসির উদ্দিন নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার খামার বজরাপুর গ্রামের বাদল উদ্দিনের ছেলে।

চান্দিনা (কুমিল্লা): বুধবার ৫ জুন বিকেলে কুমিল্লার চান্দিনায় প্রাইভেট কার চাপায় দুই পথচারী শিশু নিহত হয়েছে। নিহতরা হলো জেলার দেবিদ্বার উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের আতাপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে মাঈনুদ্দিন জিসান (৮) এবং একই গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে কাউসার (১০)। তারা একে অপরের চাচাতো ভাই। এ ঘটনায় নিহত জিসানের ভাই নূর উদ্দিন বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন।

লক্ষ্মীপুর: বৃহস্পতিবার ৬ জুন দুপুরে লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে পোশাক শ্রমিক আবুল বাসার নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আহত হয়েছে আরো দুজন।

মাগুরা: মাগুরা সদর উপজেলার ইছাখাদা এলাকায় মাগুরা-ঝিনাইদহ সড়কে গতকাল সন্ধ্যায় মাইক্রোবাসের ধাক্কায় কৃষ্ণ চন্দ্র বাছাড় (৩৫) নামে এক ব্যক্তি এবং তার আড়াই বছরের শিশুপুত্র সাম্য বাছাড়ের মৃত্যু হয়েছে।

এ ঘটনায় আহত হয়েছেন কৃষ্ণের স্ত্রী মাগুরা সদর হাসপাতালের সেবিকা নিলিমা বিশ্বাস (২৫)। নিহত কৃষ্ণ চন্দ্র ওষুধ কোম্পানি একমির মেডিক্যাল প্রতিনিধি। এ ছাড়া সদর উপজেলার পাকাকাঞ্চনপুর গ্রামে গতকাল সকালে নসিমনের ধাক্কায় মারা যান সোহাগ মোল্যা নামের এক যুবক। তিনি শালিখা উপজেলার ছানি আড়াপাড়া গ্রামের ওহাব মোল্যার ছেলে

You Might Also Like